ঢাকা, বুধবার ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০২:৩৪ পূর্বাহ্ন
যে কারণে করোনা রোগি ঘরের বাইরে
Reporter Name

জাহিদ রানা মোংলা: মোংলায় করোনা আক্রান্ত হওয়ার দুইদিন পর স্বামী-স্ত্রী দুইজনই কোন ধরণের সংক্রমণ ঝুঁকি প্রোটেকশন না নিয়ে এসেছেন একটি ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে। সেখানে এক্সরেসহ অন্যান্য পরীক্ষা শেষে আবার অন্য সাধারণ রোগীদের মাঝে এক থেকে দেড় ঘন্টা বসে খোস গল্প করে বিদায় হন তারা। তাদের মাধ্যমে যে অন্য রোগীদের মধ্যে এই সংক্রমণ ছড়াতে পারে সে চিন্তাই নেই তাদের।

এদিকে এ ঘটনা জানাজানির পর ওই ডায়াগনষ্টিক সেন্টারে সেবা নিতে আসা অন্য সাধারণ রোগীদের মাঝে হুড়োহুড়ি ও আতংকের সৃষ্টি হয়। পরে এ খবর শুনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কমলেশ মজুমদার ঘটনাস্থলে এসে রাতুল ডায়াগনষ্টিক সেন্টারটি ১৪ দিনের জন্য ডকডাউন করে দেন। এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশানর (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জীবিতেষ বিশ্বাস ও মোংলা-রামপাল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আসিফ ইকবাল।

ইউএনও কমলেশ মজুমদার বলেন, কেওড়াতলার বাসিন্দা শামছুল হকের ছেলে আবু বকর সিদ্দিক ও তার স্ত্রী নাজমা আক্তার গত ২০ এপ্রিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ‘র‍্যাপিড এন্টিজেন টেষ্ট’ এ করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন। এরপর সাথে সাথে তাদের বাড়ীতে পুলিশ পাঠিয়ে লকডাউন করে লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে দেওয়া হয়। পরে শুক্রবার খবর পেলাম ওই দম্পতি শহরে বের হয়ে রাতুল ডায়গনষ্টিক সেন্টারে এসে এক্স-রে করিয়েছেন। করোনা রোগী জানা সত্বেও কেন সেখানে ঢুকানো হলো সেজন্য ওই ডায়গনষ্টিক সেন্টারটি ১৪ দিনের জন্য ডকডাউন করার আদেশ দিয়েছি।

এদিকে এই অবস্থায় কেন বাহিরে বের হলেন জানতে চাইলে করোনা রোগী আবু বকর সিদ্দিক বলেন, আমাকে হাসপাতালের (উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স) মৌ ডাক্তার আসতে বলেছে তাই বের হয়েছি।

এ বিষয়ে হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার মৌসুমী আফরোজা মৌ বলেন, হ্যা করোনা রোগী আবু বকর সিদ্দিককে এক্স-রে করতে বলেছি, তাই এসেছে। আর সে কি ছোট মানুষ? তাদেরকে বারবার বলা হয়েছে এভাবে যেন না বের হয়, এখন তারা যদি না বুঝে আমাদের কি করার আছে বলেন?

বাগেরহাট সিভিল সার্জন ডাঃ এ কে এম হুমায়ুন কবির বলেন, আমি খোঁজ খবর নিয়ে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেব, যেন ভবিষ্যৎতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।

One response to “যে কারণে করোনা রোগি ঘরের বাইরে”

  1. … [Trackback]

    […] Find More on that Topic: doinikdak.com/news/8920 […]

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x