ঢাকা, শুক্রবার ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন
বোয়ালমারীতে বিদ্যালয়ে জাতীয় শোক দিবস পালনে অবমাননার অভিযোগ 
টুটুল বসু বোয়ালমারী , ফরিদপুর
ফরিদপুরের বোয়ালমারীর একটি নামকরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বিরুদ্ধে জাতীয় শোক দিবস পালনে অবমাননার অভিযোগ উঠেছে। বিদ্যালয়ের উন্মুক্ত মাঠে একটি চেয়ারের হাতলের উপর রক্ষিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ওই দিন পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এভাবে যেনতেনভাবে শোক দিবস পালনে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীরা। অভিযোগ আছে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান শেখ জামায়াত ঘরানার।
জানা যায়, উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নে অবস্থিত রূপাপাত বামন চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় উপজেলার অন্যতম সর্ববৃহৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। জাতীয় শোক দিবসের দিন বিদ্যালয়ের উন্মুক্ত মাঠে একটি চেয়ারের হাতলের উপর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতি রাখা হয়। এরপর বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে দায়সারাভাবে অতি সাধারণ একটি পুস্পমাল্য অর্পণ করা হয়। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। এমনকি ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান শেখ তার ফেসবুক আইডিতেও জাতীয় শোক দিবসে বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পুস্পমাল্য অর্পণের কোন ছবি আপলোড দেননি। অথচ উপজেলার অন্যান্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকরা তাদের ফেসবুক আইডিতে জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণের ছবি আপলোড দেন।
অভিযোগ আছে রূপাপাত বামন চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান শেখ জামায়াত ঘরানার।
এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মো. শাহজাহান শেখ বলেন, এতে কী এমন দোষের হয়েছে! আমিতো এতে দোষের কিছু দেখি না।
বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সদ্য বিদায়ী সভাপতি মো. নিরুল মিয়া বলেন, ১৫ আগস্টের দুই দিন পর আমি জানতে পারি প্রধান শিক্ষক গুটিকয়েক ব্যক্তির উপস্থিতিতে বিদ্যালয়ের মাঠে একটি ভাঙা চেয়ারের উপর বঙ্গবন্ধুর ছবি রেখে তাতে মাল্যদান করেন। যা অত্যন্ত দুঃখজনক এবং নিন্দনীয়।
এ ব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বোয়ালমারী উপজেলা শাখার সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক আব্দুর রশীদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর ছবি চেয়ারের উপর রেখে পুস্পমাল্য অর্পণ করা ঠিক হয়নি। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি যথাযথ স্থানে রেখে শ্রদ্ধা নিবেদন করা উচিত। এটা কমন সেন্সের (সাধারণ জ্ঞান) ব্যাপার।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x