ঢাকা, বুধবার ১৯ জুন ২০২৪, ০১:৪৯ পূর্বাহ্ন
সলঙ্গা থানা মাঠে বছর জুড়ে জলাবদ্ধতা : সংস্কার দাবী
জি,এম স্বপ্না, সিরাজগঞ্জ

মাটি ভরাট,সংস্কার ও ড্রেনেজ অব্যবস্থার কারনে সিরাজগঞ্জের ঐতিহাসিক সলঙ্গা থানা মাঠটি বছরের বেশির ভাগ সময় বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে থাকে। কচুরী পানায় ভরপুর থাকলেও দেখার কেউ নেই। এতে মাঠের দক্ষিন পাশে বসবাসকারী লোকজনেরর যাতায়াত সহ এলাকার যুব সম্প্রদায় ও ক্রীড়ামোদীরা দীর্ঘদিন ধরে খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

ঐতিহ্যবাহী খেলার মাঠ হিসেবে সলঙ্গা থানা মাঠটি এলাকায় বেশ পরিচিত ছিল। এক সময় এই খেলার মাঠে সবচেয়ে টিমের বড় বড় ফুটবল খেলাসহ অন্যান্য খেলাধুলা অনুষ্ঠিত হত। শুধু তাই নয়,মাঠটি থানা সদরে হওয়ার কারনে বিভিন্ন জনসভার আয়োজন করা হত এ মাঠে।  কিন্তু বর্তমানে মাঠের অবস্থা ভালো না থাকার কারনে কোনো কোন খেলাধুলাই অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। এর প্রধান কারণ হচ্ছে,খেলার মাঠের চারদিকে উঁচু,সংস্কার না করা,ড্রেনেজ ব্যবস্থা দুর্বল বলে বছরের অধিকাংশ সময় বৃষ্টির পানিতে খেলার মাঠটি তলিয়ে থাকে। এ কারনে স্থানীয় যুবসমাজ ও ক্রীড়ামোদীরা খেলাধুলা করতে পারছেনা। উন্মুক্ত স্থানে বসতে, খেলতে না পারায় যুবসমাজ দিন দিন খারাপ কাজের সাথে  জড়িয়ে পড়ছে বলেও অনেকে অভিযোগ করেন। মাঠের পাশে প্রতি সোমবার সাপ্তাহিক গরুর হাট বসায় গরুবাহী নসিমন,করিমন আর হাটের পঁচা, ময়লা আবর্জনা উক্ত মাঠেই ফেলে যায় বিক্রেতারা। এতে এলাকার পরিবেশও দুর্গন্ধময় হয়ে উঠে। এ ছাড়াও প্রশাসনের রহস্যজনক নীরবতার কারনে প্রভাবশালীরা মাঠের উত্তর পাশে পাকা রাস্তা সংলগ্ন খেলার মাঠের সরকারী জায়গা দখল করে হোটেল,দোকান পাট গড়ে তুলে নির্বিঘ্নে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী,,যুব সম্প্রদায় ও ক্রীড়ামোদীরা মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য, জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাজিবুল আলম মুঠোফোনে বলেন,সলঙ্গা থানা খেলার মাঠে জলাবদ্ধতা আমার জানা নাই।জানার পর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x