ঢাকা, সোমবার ২৫ অক্টোবর ২০২১, ০৭:৫৯ অপরাহ্ন
‘১২-১৭ বছর বয়সীদের টিকার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি’
অনলাইন ডেস্ক

১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত এখনও চূড়ান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। আজ রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) আয়োজিত ভার্চুয়াল বুলেটিনে এ কথা বলেন অধিদফতরের মুখপাত্র অধ্যাপক ডা. নাজমুল ইসলাম।

বুলেটিনে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে কিনা প্রশ্নে তিনি বলেন, টিকা বিষয়ক জাতীয় পরামর্শক কমিটিসহ অন্যান্য সবার পরামর্শ নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং অধিদফতর এ  সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে।ক

দেশে আবারও গণটিকা কার্যক্রম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও নির্দেশনা পাইনি। যদি এ রকম পরিকল্পনা হয়, সেটি নিশ্চয়ই জানানো হবে।

দেশের সংক্রমণ পরিস্থিতি সম্পর্কে জানাতে গিয়ে তিনি বলেন, গত সাত দিনে শনাক্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৭৫৮ জন, তার আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩ হাজার ৭৫৮ জন কম। মৃত্যুর সংখ্যাও কমেছে।

পুরো সপ্তাহের প্রথম দুদিন শনাক্তের হার সাত শতাংশের কিছুটা বেশি ছিল, এরপরের দিনগুলোতে থেকে ছয় শতাংশ বা এর চেয়ে কিছুটা বেশি। সামগ্রিকভাবে গত ৩০ দিনের সংক্রমণের যে চিত্র সেটা এই মুহূর্তে নিম্নমুখী আছে। এই শনাক্তের হার যদি ধারাবাহিকভাবে অব্যাহত রাখা যায় তাহলে আমাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাওয়ার যে প্রচেষ্টা চলছে, সেটা বেগবান হবে।

জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেশে করোনা পরিস্থিতির চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, সবচেয়ে বেশি রোগী দেখা গেছে গত জুলাই মাসে। সে মাসে শনাক্ত হয়েছিলেন ৩ লাখ ৩৬ হাজার ২২৬ জন, আর সেপ্টেম্বর মাসে এখন পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ৬৮২ জন।

এ সময়ে (জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর) সংক্রমণের ভিত্তিতে শীর্ষ ১০ জেলার মধ্যে ঢাকা জেলা সবার শীর্ষে রয়েছে জানিয়ে অধ্যাপক নাজমুল ইসলাম বলেন, এ জেলায় এখন পর্যন্ত ৫ লাখ ১৩ হাজার ৯৪২ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। আর শীর্ষ ১০ জেলার তালিকায় দশম স্থানে রয়েছে নোয়াখালী জেলা। এ জেলায় শনাক্ত হয়েছে ২২ হাজার ৬২৯ জন।

তিনি জানান, করোনা আক্রান্ত হয়ে যাদের মৃত্যু হচ্ছে তাদের মধ্যে ৫১ থেকে ৬০ বছর এবং ৬১ থেকে ৭০ বছর বয়সী বেশি।

বর্তমান পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে এবং টিকা নিলে অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন ডা. নাজমুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x