ঢাকা, রবিবার ২৬ মে ২০২৪, ১২:৪৭ অপরাহ্ন
পাবনার চাটমোহরে বছরে ১৪ হাজার ২২১ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

পাবনার চাটমোহরে প্রতি বছর ৯ হাজার ৫৩৭ হেক্টর জলায়তনে উৎপাদন হচ্ছে ১৪ হাজার ২২১ মেট্রিক টন মাছ। জন প্রতি ৬০ গ্রাম হিসেবে চাটমোহরের মানুষের মাছের চাহিদা রয়েছে ৬ হাজার ৬২২ মেট্রিক টন। উদ্বৃত্ত ৭ হাজার ৫৯৯ মেট্রিক টন মাছ যাচ্ছে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায়।
চাটমোহরের নদ-নদী, খাল-বিল, পুকুরসহ অন্যান্য জলাশয়ে প্রচুর পরিমানে রুই, কাতলা, মৃগেল, ষোল, টাকি, বোয়াল, পাবদা, টেংড়া, পুটি, চাঁদা, আইড়, গুজ্যা, বাইন, কাকিলা, খলিশা, ফাঁতাসি, রায়েক, তেলাপিয়া, মনোসেক্স, কার্প জাতীয় মাছসহ ছোট বড় আরো বিভিন্ন রকমের মাছ উৎপাদন হয়।
চাটমোহর উপজেলা মৎস কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানাগেছে, চাটমোহরের ১১ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এলাকার মধ্যে সরকারী ১৮৬ টি পুকুরে ৩৪৩ মেট্রিক টন, বেসরকারী ৪ হাজার ৩১২ টি পুকুরে ৯ হাজার ২৫২ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয়। ৫ টি নদীর ৯৮৩ হেক্টর জলায়তনে ৪৯৪ মেট্রিক টন, ২৪ টি বিলের ১ হাজার ৮৭৬ হেক্টর জলায়তনে ১ হাজার ৬৬৪ মেট্রিক টন, ৪৮ টি প্লাবন ভূমির ৪ হাজার ৫২৬ হেক্টর জলায়তনে ২ হাজার ২৯৫ মেট্রিক টন, ২০ টি বরোপিটের (রাস্তার পাশের লম্বাকৃতির জলাশয়) ২১ হেক্টর জলায়তনে ৭৫ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয়।
চাটমোহরে ২০৬ হেক্টর জলায়তনের ৭৮ টি বাণিজ্যিক মৎস খামার রয়েছে। ধান ক্ষেতে মাছ চাষের ১০ টি জলায়তনে ১৪ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন হয়। একটি গ্রæপ ০.০১৮ হেক্টর জলায়তনে খাচায় মাছ চাষ করে। এ ছাড়া সরকারি ১ টি হ্যাচারীতে ৫৫ কেজি রেনু উৎপাদন হয়। ইউনিয়ন প্রকল্প সি.বি.জি’র সংখ্যা ৪ টি। স্থায়ী-অস্থায়ী মৎস্য অভয়াশ্রম রয়েছে ৫টি । ৬৭ জন পোনা উপাদনকারী ১২৪.৬৭ হেক্টর আয়তনের ১৩২ টি পুকুরে ৩৯৮.৬৬ লক্ষ পোনা উৎপাদন করেন। উদ্বৃত্ত ২৪৬.৪১ লক্ষ পোনা চাটমোহরের বাইরের মৎস খামারীরা কিনে নিয়ে যান।
চাটমোহর উপজেলা মৎস কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো. শফিকুল ইসলাম জানান, মাছ চাষ সম্প্রসারণের লক্ষে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ৪৫০ জন্য মৎস্যচাষীকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে উন্মুক্ত জলাশয়ে ৪৫৫ কেজি মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়। নিমগাছী সমাজ ভিত্তিক মৎস চাষ নীতিমালা ভূক্ত ১০০ টি পুকুরে ৬৪ টি সুফল ভোগী দলের ৭৮৭ জন ৬৬.৪০ হেক্টর জমিতে মৎস চাষ করে মাছের উৎপাদন বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখছেন। মৎস উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে মৎসচাষ প্রযুক্তি সেবা সম্প্রসারণ প্রকল্প (২য় পর্যায়), ন্যাশনাল এগ্রিকালচারাল টেকনোলজী প্রোগ্রাম (ফেজ-২), রাজশাহী বিভাগে মৎস সম্পদ উন্নয়ন প্রকল্প, জলাশয় সংস্কারের মাধ্যমে মৎস উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্প চলমান রয়েছে।
তিনি আরো জানান, চাটমোহরে মোট ৫০৯০ জন নিবন্ধিত জেলে রয়েছে। ৫৯ টি মৎসজীবি সমিতি আছে। সিআইজি (কমন ইন্টারেষ্ট গ্রæপ) ভূক্ত মৎস চাষী সমিতির সংখ্যা ২২ টি। মোট পুকুর রয়েছে ৪৩০০ টি। মাছ চাষ সম্প্রসারণের লক্ষে প্রদর্শনী বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। দেশী প্রজাতির শিং, মাগুর, গুলশা, পাবদা মাছ চাষ সম্প্রসারণের লক্ষে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। সব মিলিয়ে চাটমোহরের নদ-নদী, বিল, বদ্ধ পুকুরসহ অন্যান্য জলাভূমিতে দেশের অনেক এলাকার চেয়ে বেশি পরিমান মাছ উৎপাদন হচ্ছে যা মানুষের আমিষের ঘাটতি পূরণে সহায়ক ভূমিকা রাখছে।

 

7 responses to “পাবনার চাটমোহরে বছরে ১৪ হাজার ২২১ মেট্রিক টন মাছ উৎপাদন”

  1. Now I am ready to do my breakfast, after having my breakfast coming over
    again to read other news.

  2. Hi there just wanted to give you a quick heads up.
    The text in your content seem to be running off the screen in Internet explorer.
    I’m not sure if this is a format issue or something to do with web browser compatibility but I figured I’d post
    to let you know. The layout look great though!
    Hope you get the issue fixed soon. Cheers

  3. … [Trackback]

    […] There you can find 35060 more Information to that Topic: doinikdak.com/news/56195 […]

  4. This is very interesting, You’re a very skilled blogger.
    I’ve joined your rss feed and look forward to seeking more of
    your great post. Also, I have shared your website in my social networks!

  5. Magnificent website. A lot of useful information here. I am sending it to several friends ans also sharing in delicious.

    And obviously, thanks for your sweat!

  6. I was wondering if you ever thought of changing the layout of
    your website? Its very well written; I love what youve got to say.
    But maybe you could a little more in the way of content so people could connect with it better.
    Youve got an awful lot of text for only having one or two images.
    Maybe you could space it out better?

  7. There is certainly a great deal to learn about this subject.
    I love all of the points you have made.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x