ঢাকা, মঙ্গলবার ১৭ মে ২০২২, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন
বিরামপুরে আখ বিক্রিতে ব্যস্ত মৌসুমী ব্যবসায়ীরা
মিজানুর রহমান মিজান, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলা হাটবাজার ও রাস্তার পাশের বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে মৌসুমি ফসল আখ বিক্রিতে ব্যস্ত সময় পার করছে ক্ষুদ্র মৌসুমী ব্যবসায়ীরা। আর সেই আখ কিনতে ভীড় করছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত আখগুলো ভালোভাবে পরিষ্কার করে লম্বা করে সাজিয়ে রাখছেন।

রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিরামপুর পৌর  শহরের বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, ঢাকামোড় (ফলপট্টি) নতুন বাজার, পুরাতন বাজার,  কলেজ বাজারসহ শহরের বিভিন্ন রাস্তা ও বাজারের মোড়ে মোড়ে আখগুলো লম্বা করে সাজিয়ে নিয়ে বসে ও দাঁড়িয়ে আছেন খুচরা ব্যবসায়ীরা। খুচরা ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিটি মোটা ও লম্বা আখ বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকায়।

বিরামপুর কলেজ বাজারের আখ বিক্রেতা জুয়েল জানান, নীলফামারীর জেলার আখের আড়ৎ থেকে তিনি দুই তিনদিন পর পর এক বোঝা ১০০টি ১৬’শত টাকা দামে তিন বোঝা ৩০০টি আখ ৪৮’শত টাকায় কিনে আনেন। আর সেই আখ সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ২০ থেকে ৩০ টাকা দরে বিক্রি করেন। আবার অনেক সময় বোঝার মাঝে চিকন আখ থাকে সেগুলো আবার একটু কম দামে ১৫ টাকা দরে বিক্রি করে বলেও জানান । এসব আখ বিক্রি করে তাঁর প্রতিদিন ৭’শত থেকে ৮’শত টাকা লাভ হয়।

পৌর শহরের ৪নং ওয়ার্ডের বসুন্ধরা এলাকার আখ বিক্রেতা শফিকুল ইসলাম জানান, পার্শ্ববর্তী হাকিমপুর উপজেলার সাতকুঁড়ি বাজার থেকে ৩’শত লাল রংয়ের আখ ৪৫’শত টাকায় কিনে আনেন তিনি। আবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত সেই আখ ২৫ থেকে ৩০ টাকা দরে বিক্রি করেন। এতে করে প্রতিদিন তাঁর ৬’শত থেকে ৭’শত টাকা লাভ হয়।

বাজারে আখ কিনতে আসা আখ কিনতে আসা পৌর শহরের দাঁশআড়া গ্রামের সেকেন্দার আলী বলেন,আখ একটি মৌসুমি সু-স্বাদু ফল। আমি পরিবার ও বাচ্চাদের জন্য বাজারে আখ কিনছি। এই গরমে আখের মিষ্টি রস খেলে শরীরটা অনেক তৃপ্তি হয়। তবে এবার আখের দামটা একটু বেশি।

আখ কিনতে আসা পৌর শহরের দোশরা গ্রামের অধ্যাপক নূরুল মোস্তফা  বলেন,
আখ একটি মৌসুমি রসালো ও সু-স্বাদু ফল। আখের রস মিষ্টি হলেও শরীরের ওজন বাড়ে না বরং কমে। এছাড়া আখের রস খেলে বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়। তাই নিজের পরিবারের জন্য বাজারে আখ কিনতে আসছি। তবে এবার আখের দাম অন্যান্য বছরের তুলনায় একটু বেশি।

বিরামপুর উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ নিকছন চন্দ্র পাল জানান, আখ একটি মৌসুমি রসালো ও সু-স্বাদু ফল। বিরামপুরে আখ তেমন চাষ হয় না। তবে কিছু কিছু চাষীরা আছেন তারা অল্প করে তাঁদের প্রয়োজন মেটানোর জন্য অল্প কিছু জমিতে এই আখের চাষ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x