ঢাকা, শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৩ অপরাহ্ন
শরীয়তপুরে আনন্দ বাজারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

মোঃ ইউনুস আলী- শরীয়তপুরঃ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পেলেও

শরীয়তপুরে জাজিরায় আনন্দ বাজারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি।

আজ মঙ্গলবার (২৭ শে জুলাই) হাটের দিনেও বেশিরভাগ মানুষের মুখে নেই মাক্স। অবাধে চলাফেরা করছে জনসাধারণ লোক। দুই একজন ছাড়া বাকি সবাই মাক্স ছাড়া বের হয়েছে। দোকানদার ও ক্রেতা কেউ  স্বাস্থ্যবিধি মানার কোনো বালাই নেই। কেবা শুনে কার কথা। বারবার বলা সত্বেও তেমন কোনো পরিবর্তন দেখা যাচ্ছে না সাধারণ মানুষের মধ‍্যে।

এব‍্যাপারে বাজার কমিটির কোন উদ‍্যোগ লক্ষ‍্য করা যায়নি। লকডাউন কঠোরতম হলেও এটাকে সঠিকভাবে মানছেননা অনেকে।

তবে সেনাবাহিনী যখন আসে তখন দোকান পাট বন্ধ থাকলেও পরে তা খুলে রাখে। অনেকেই মনে করেন স্বাস্থ্য বিধি না মানার কারনে শরীয়তপুরে করোনা ভাইরাসে বেশিরভাগ ভাগ লোক আক্রান্ত হচ্ছে।

রাস্তায় তেমন কোনো যানবাহন না থাকলেও মানুষের চলাচল বেশি দেখা গেছে। তবে পুলিশ, সেনাবাহিনী তারা কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। অনেকেই জরিমানা করছেন এবং বিনা প্রয়োজনে যাতে ঘর থেকে বের না হয় সে ব‍্যাপারে বলা হচ্ছে।

6 responses to “শরীয়তপুরে আনন্দ বাজারে মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্য বিধি”

  1. I have read several excellent stuff here. Definitely price bookmarking for
    revisiting. I surprise how a lot attempt you put to make one
    of these wonderful informative website.

  2. … [Trackback]

    […] Read More on on that Topic: doinikdak.com/news/40920 […]

  3. Hi, I log on to your new stuff like every week. Your humoristic
    style is witty, keep it up!

  4. Hi there! This blog post couldn’t be written any better!
    Reading through this post reminds me of my previous
    roommate! He continually kept preaching about this.
    I’ll send this information to him. Pretty sure he
    will have a good read. Many thanks for sharing!

  5. You can certainly see your enthusiasm in the work you write.
    The sector hopes for even more passionate writers like you who are not afraid to say
    how they believe. At all times go after your heart.

  6. It’s the best time to make some plans for the long
    run and it’s time to be happy. I’ve learn this publish and if I may I desire to suggest you few attention-grabbing things
    or advice. Perhaps you could write subsequent articles regarding this article.
    I want to learn more issues approximately it!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x