ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪, ০৯:২৪ অপরাহ্ন
জগন্নাথপুর পৌর সদরে ২ পুরনো সেতু এখন গলার কাঁটা
জগন্নাথপুর প্রতিনিধি ::

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌর সদরে নলজুর নদীর উপর থাকা ২টি পুরনো সেতু এখন গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কালের পরিক্রমায় সেতুগুলো সরু হয়ে যাওয়ায় যানজট লেগেই থাকে। প্রতিনিয়ত যানজটের কারণে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। বর্তমানে সেতুগুলো ভেঙে নতুন অথবা প্রশ্বস্ত করার দাবি জোরালো হয়ে উঠেছে।

জানাগেছে, ১৯৮০ সালে জগন্নাথপুর থেকে সিলেটে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম নলজুর নদীর উপর একটি সেতু নির্মাণের দাবি জোরালো হয়ে উঠে। তখন এরশাদ সরকারের আমলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রয়াত আছাব আলীর প্রচেষ্টায় ১৯৮৪-৮৬ সালে খাদ্য গুদামের কাছে সরকারি ভাবে নলজুর নদীর উপর একটি সেতু নির্মাণ হয়। এ সেতু নির্মাণকালে ইকড়ছই ও হবিবপুর গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল। পরে সাবেক পৌর মেয়র প্রয়াত হারুনুর রশীদ হিরন মিয়ার প্রচেষ্টায় ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় ব্যক্তিগত ভাবে শহীদ মিনার এলাকায় নলজুর নদীর উপর আরেকটি সেতু নির্মাণ করা হয়। এ সময় নলজুর নদীর উপর এ ২টি সেতু হওয়ায় জগন্নাথপুর থেকে সিলেটের সাথে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ হয়। এতে জনমনে আনন্দ দেখা দেয়।

এদিকে-কালের পরিক্রমায় দিনে দিনে জগন্নাথপুরে বাড়তে থাকে যানবাহন ও জনসংখ্যা। এসব পুরনো সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল সংকুলান হয় না। যে কারণে দীর্ঘদিন ধরে যানজটের ভোগান্তি লেগেই আছে। এর মধ্যে ২০১৯ সালে সুনামগঞ্জ-ঢাকা আঞ্চলিক মহাসড়কের অধীনে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানের প্রচেষ্টায় জগন্নাথপুর পৌর সদরের ভেতরে উন্নতমানের কাঙ্খিত বড় সড়ক হওয়ায় যানজট অনেকটা লাঘব হয়েছে। তবে পুরনো এসব সেতুর কারণে যানজটের ভোগান্তি থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না ভূক্তভোগী জনতা। প্রতিদিন এসব যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশকে হিমশিম খেতে হচ্ছে। তাই আগের ২টি পুরনো সেতু ভেঙে নতুন অথবা প্রশ্বস্ত করার দাবি এখন জোরালো হয়ে উঠেছে।

এক সময় এ ২টি সেতু জগন্নাথপুরবাসীর জন্য ছিল আশির্বাদ। বর্তমানে গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই জনস্বার্থে জরুরী ভিত্তিতে এসব সেতু ভেঙে নতুন অথবা প্রশ্বস্ত করতে সরকারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান সেতুতে যানজটে আটকেপড়া ভূক্তভোগী পথচারী জনতাদের মধ্যে অনেকে। এ বিষয়ে ১৯ সেপ্টেম্বর রোববার জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র আক্তার হোসেন বলেন, এসব পুরনো সেতুর কারণে কষ্ট পাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তাই মাননীয় পরিকল্পনামন্ত্রীর প্রচেষ্টায় নতুন সেতু নির্মাণের প্রক্রিয়া চলছে। জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) গোলাম সারোয়ার জানান, খাদ্য গুদামের কাছে পুরনো সেতু ভেঙে ১০ কোটি টাকা ব্যয়ে নতুন সেতু নির্মাণ করা হবে। শুধু সেতুর পাশে থাকা বিদ্যুতের খুঁটি ও ট্রান্সফরমার সরানো হয়ে গেলে কাজ শুরু হয়ে যাবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শহীদ মিনার লাকার সেতুটিও পর্যায়ক্রমে হবে। তবে জগন্নাথপুর উপজেলা আবাসিক প্রকৌশলী (বিদ্যুৎ) আজিজুল ইসলাম আজাদ বলেন, এখানে খুঁটি সরিয়ে বিকল্প লাইন টানার সুযোগ নেই। তাই বাধ্য হয়ে মাটির নিচ দিয়ে লাইন নিতে হবে। এতে এলজিইডি কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় খরচের অর্থ ছাড় দিলেই আমাদের লাইন সরানোর কাজ শুরু হয়ে যাবে। এতে প্রায় ২ থেকে ৩ মাস সময় লাগতে পারে।

 

19 responses to “জগন্নাথপুর পৌর সদরে ২ পুরনো সেতু এখন গলার কাঁটা”

  1. Hi, There’s no doubt that your website may be having browser compatibility problems.
    Whenever I take a look at your web site in Safari, it looks fine
    however when opening in Internet Explorer, it has some overlapping issues.
    I simply wanted to provide you with a quick heads up! Other than that, excellent website!

  2. Thank you for any other informative site. The place else may I am getting that kind of info written in such an ideal manner?

    I’ve a mission that I am just now working on, and I’ve been on the glance out for
    such information.

  3. If some one needs expert view on the topic of blogging and site-building then i recommend him/her to pay a quick visit this webpage, Keep up the fastidious
    job.

  4. Why viewers still make use of to read news papers when in this technological globe all is presented on web?

  5. Inspiring quest there. What occurred after? Thanks!

  6. Hello! I know this is somewhat off-topic but I needed to ask.
    Does operating a well-established blog like yours require a lot of work?
    I’m brand new to blogging however I do write in my diary every day.

    I’d like to start a blog so I will be able to
    share my own experience and feelings online. Please let
    me know if you have any suggestions or tips for brand new
    aspiring bloggers. Thankyou!

  7. Click Link says:

    My developer is trying to convince me to move to .net from PHP.

    I have always disliked the idea because of the costs.
    But he’s tryiong none the less. I’ve been using Movable-type on various websites for about a year and am nervous about
    switching to another platform. I have heard good things about blogengine.net.
    Is there a way I can import all my wordpress posts into it?
    Any kind of help would be greatly appreciated!

  8. An impressive share! I have just forwarded this onto a colleague who was doing a little
    homework on this. And he actually bought me dinner simply because
    I found it for him… lol. So let me reword this….
    Thanks for the meal!! But yeah, thanx for spending time to
    talk about this topic here on your web page.

  9. js混淆 says:

    js混淆 hello my website is js混淆

  10. janjiwin says:

    janjiwin hello my website is janjiwin

  11. bang 4d says:

    bang 4d hello my website is bang 4d

  12. jaster says:

    jaster hello my website is jaster

  13. iwantu says:

    iwantu hello my website is iwantu

  14. peladen says:

    peladen hello my website is peladen

  15. bo bola says:

    bo bola hello my website is bo bola

  16. love v2 says:

    love v2 hello my website is love v2

  17. bite me says:

    bite me hello my website is bite me

  18. With havin so much content do you ever run into any issues of plagorism or copyright violation? My website has
    a lot of unique content I’ve either written myself or outsourced but it appears a lot of
    it is popping it up all over the internet without my authorization. Do you know any ways to help prevent content from being stolen? I’d truly appreciate it.

  19. When someone writes an paragraph he/she keeps the thought of a user in his/her brain that how a user can understand it.
    Therefore that’s why this post is great. Thanks!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x