ঢাকা, রবিবার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২:০৩ অপরাহ্ন
ভোকেশনাল খেলার মাঠ রক্ষায় প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের সাথে সম্মিলিত পরিষদের মতবিনিময়
নিজস্ব সংবাদদাতাঃ

নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন পাঠানটুলী এলাকায় স্থাপিত নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (ভোকেশনাল) এর খেলার মাঠ রক্ষায় সম্মিলিত শিক্ষার্থী অভিভাবক ও এলাকাবাসী কমিটির আহ্বায়ক ও মুখপাত্র গোলাম মোস্তফা সাচ্ এর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব কাজী হারুন আল মামুনের সঞ্চালনায় ১১ আগষ্ট (বুধবার) বিকেল ৬:৩০ মিঃ চাষাঢ়া বালুর মাঠ বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা কার্যালয়ে নারায়ণগঞ্জের প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠন সমূহের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গত মে মাসের শেষের দিকে আইলপাড়া পাঠানটুলীস্থ নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (ভোকেশনাল) কর্তৃপক্ষ খেলার মাঠ কেটে নতুন ভবনের কাজ শুরু করলে সকলের নজরে আসে। এর পর থেকেই শুরু হয় মাঠ রক্ষার আন্দোলন সংগ্রাম। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ বরাবরে ভবন নির্মাণের চলমান কাজ বন্ধের আবেদন করে কোন প্রতিকার না পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক এর নিকট স্মারকলিপি জমাদেন অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত শিক্ষার্থী অভিভাবকবৃন্দ। জমা দেবার বেশ কিছু দিন পেড়িয়ে গেলেও শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী নির্মানকাজ বন্ধের কোন ধরনের পদক্ষেপ না দেখে মেয়র আইভীর নিকট মাঠ রক্ষায় প্রতিকার চেয়ে গত ০৮/০৬/২০২১ ইং ভোকেশনাল খেলার মাঠ রক্ষায় সম্মিলিত শিক্ষার্থী অভিভাবকবৃন্দ আবেদন করেন। এ আবেদন গ্রহন করার সময় বিস্তারিত শুনে তাৎক্ষণিকভাবে মাঠ পরিদর্শনের জন্য সিটি কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পাঠালে তারা নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ পরিদর্শন করেন সেই সাথে চলমান নির্মাণ কাজ বন্ধ করেদেন। মেয়রের এ পদক্ষেপে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী কিছুটা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে মাঠ রক্ষার আশার আলো দেখতে পায়। পরবর্তীতে মেয়র আইভী নিজেও গত ২২/০৮/২০২১ ইং তারিখে সরেজমিনে আসেন এবং পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, উত্তর এবং উত্তরপশ্চিমে যে জায়গা রয়েছে যথাযথ পরিকল্পনা থাকলে এই খেলার মাঠ ঠিক রেখে ঐ স্থানে নব ভবন নির্মাণ কাজ করা যেতো, আমার সিটি কর্পোরেশনের কাজ হলে একরকম অপরিকল্পিত ভাবে করতাম না, কিন্তু ভোকেশনাল কর্তৃপক্ষ কেন যে এরকম সুন্দর একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের খেলার মাঠ কেটে ভবন নির্মাণের কাজ করছে তা আমার বুঝে আসে না।
মেয়রের হস্তক্ষেপে কিছু দিন নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকলেও সংগ্রামরত নেতৃবৃন্দের সাথে কোন ধরনের আলোচনা না করে গত ০২/০৭/২০২১ ইং তারিখে পূনরায় নির্মাণ কাজ শুরু হলে সকলেই মর্মাহত হয়।
এক দিকে ধাপে ধাপে লকডাউন অন্য দিকে নির্মাণ কাজ চলমান, এরকম একটি পরিস্থিতিতে সংগ্রামরত নেতৃবৃন্দ আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় মহামান্য হাইকোর্টের আশ্রয় নেয় এবং মাঠ রক্ষা সকলের পক্ষথেকে কমিটির আহবায়ক গোলাম মোস্তফা সাচ্ বাদী হয়ে একটি রীট পিটিশন করেন। কমিটির উপদেষ্টা হিমাংশু সাহার উপস্থিতিতে মতবিনিময় সভার আলোচনায় অংশ নেয় বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি ও জেলা সভাপতি জেসমিন আক্তার, সহ সাধারণ সম্পাদক রাফি উদ্দিন আহমেদ প্রাচী, সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম, ছাত্র ফেডারেশনের জেলা সভাপতি ইলিয়াস জামান, বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের জেলা সহ সাধারণ সম্পাদক সংহতি ঘোষ রমা, সাংগঠনিক সম্পাদক ইফাদ ইমতিয়াজ অয়ন্ত, শহর কমিটির প্রচার ও প্রচারণা বিষয়ক সম্পাদক মাসুম শিকদার অভী, মাঠ রক্ষায় সম্মিলিত পরিষদ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মোঃ অহিদুজ্জামান, সদস্য মোঃ আবু সাঈদ, জাহিদুল ইসলাম শুভ প্রমূখ।

সভায় আইনী লড়াইয়ের পাশাপাশি মাঠের সংগ্রাম অব্যাহত রাখার জন্য জোর দিয়ে বক্তারা বলেন, একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে খেলার মাঠ বিলুপ্ত করে ভবন নির্মাণ পৃথিবীর কোন সভ্য দেশের কাজ হতে পারে না, কেননা একটি শিক্ষার্থীর শিক্ষার পাশাপাশি খেলাধুলা তার দৈহিক এবং মনন বিকাশে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। যা সমাজের এবং রাষ্ট্রের সুস্থ ধারার গতিকে তরান্বিত করতে সহায়ক হিসেবে কাজ করে, আর এই উপলব্ধি থেকে যখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী খেলার মাঠ – জলাশয় রক্ষার নির্দেশনা দিয়েছেন, তা উপেক্ষা করে খেলার মাঠ কেটে ভবন নির্মাণ করার মতো আত্মঘাতী কাজ কি করে নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ (ভোকেশনাল) কর্তৃপক্ষ নিয়েছে তা কোনো বিবেকবান নাগরিকের বোধগম্য হতে পারে না। ভোকেশনাল কর্তৃপক্ষের এহেন অপরিকল্পিত এবং পরিবেশ বিমুখ উদ্যোগের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানানো হয়। একই সাথে বক্তারা বলেন, যেহেতু নব ভবন করার মতো প্রতিষ্ঠানের অভ্যন্তরে যথেষ্ট ভূমি রয়েছে তাই খেলার মাঠ ঠিক রেখে নব ভবনের কাজ স্থানান্তর করার জোর দাবি জানানো হয়।
সভায় আগামী ১৩ আগস্ট (শুক্রবার) সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানব বন্ধন করার সিদ্ধান্ত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x