ঢাকা, মঙ্গলবার ২৪ মে ২০২২, ০৮:২৭ অপরাহ্ন
যানজটে নাকাল ঈদগাঁওবাসী : ভোগান্তি চরমে
এম আবু হেনা সাগর, ঈদগাঁও

কক্সবাজারের ব্যস্তবহুল বাণিজ্যিক উপশহর ঈদগাঁও বাজারে একদিকে সড়ক-উপসড়ক সংকীর্ণতা, অন্যদিকে মালবাহী ট্রাকে চলাচল সড়ক দখলে থাকে সারাক্ষন। দুই সমস্যায় জর্জরিত বাজারবাসী। যানজট কোন ভাবে কমছেনা। যত্রতত্র স্থানজুড়ে তিন চাকার যান বাহনসহ বিভিন্ন রকমের যান চলাচলে কোন নিয়মনীতি না থাকায় প্রতিনিয়ত যানজটের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে বাজারের ব্যবসায়ী, পথচারীসহ রোগীরা। মহাসড়কের বাসষ্টেশন জুড়েই যানজট লেগে থাকে। প্রায়শ যানজট চিত্র যেন চোখে পড়ে। যানজটের ভোগান্তি থেকে রক্ষা পেতে চাই বাজারের নানানশ্রেনী পেশার লোকজন।

দেখা যায়, ঈদগাঁও বাজারের প্রধান ডিসি সড়ক সহ অলিগলির উপসড়কগুলো সংকীর্ণতায় ভরে গেছে। কতিপয় ব্যবসায়ীরা তাদের দোকানের সামনে উপভাড়া,লম্বা করে সিড়ি বের করে দিয়ে বেকায়দায় ফেলেছে লোকজনের যাতায়াতকে। উপভাড়া থেকে ফায়দা লুটিয়ে লোকজনসহ যান চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করেছে। সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ এসবের বিরুদ্বে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা বলে অভি যোগ পথচারীদের।

যার দরুন, প্রায়শ যানজট লেগেই থাকে। বিশেষ করে সন্ধ্যায় ভয়াবহ যানজট লেগে থাকে।  মহা সড়ক জুড়েই দুরপাল্লার যানবাহনের পাশাপাশি তিনচাকার গাড়ী গ্রামীন সড়ক পেরিয়ে মহা সড়কে বেপরোয়া গতিতে চালনার ফলে এহেন অবস্থার সৃষ্টি বলে জানালেন সাধারন মানুষ।

ষ্টেশনের দুপাশ জুড়েই নানান যানবাহন সারিবদ্ব ভাবে রাখায় অন্য গাড়ী চলাচল করতে হিমশিম খাচ্ছে। রিক্সার পাশাপাশি যন্ত্রচালিত এসব লাইসেন্স বিহীন তিন চাকার যানবাহনও চলছে সমান তালে। আবার অদক্ষও আনাড়ী চালক। নীতিমালার সীমাবদ্ধতার অজুহাতে এ গুলো নিয়ন্ত্রণের দায়দায়িত্ব নিতে চায়না সংশ্লিষ্টরা। ভয়,দ্বিধা-দ্বন্ধ ছাড়া রাস্তায় দূরন্ত বেগে ছুটে যাওয়া ব্যাটারী চালিত যানবাহনে বেড়ে চলছে প্রায়শ দূর্ঘটনা। ব্যাটারী চালিত গাড়ী সড়কে চলে অনেকটা দূর্ঘটনার ঝুঁকি নিয়ে। বিদ্যুৎ চালিত অটো রিক্সার পাল যেন বৃহত্তর এলাকার প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চলের আনাছে কানাছে। প্রায়শ দূর্ঘটনাও ঘটে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীসহ রোগীরা নিদা রুন কষ্ট পাচ্ছে। দুর্ভোগ-দূর্গতি পিছু ছাড়ছেনা।

সচেতন মহলের মতে,ছোট যানবাহনের কারনে যানজট সৃষ্টি হওয়ায় সড়ক উপসড়কও বাজারে পায়ে হেটে চলাচল অনেকটা দায় হয়ে পড়ে। স্টেশন ভিত্তিক ট্রাফিক পুলিশ থাকলেও বাজার এলাকায় না থাকায় ভোগান্তিতেই পড়তে হচ্ছে পথচারীসহ সাধারন লোকজনকে।

পথচারী আবু বক্কর,শামসু জানিয়েছেন, ঈদগাঁও মেডিকেল থেকে হাইস্কুল গেইট পর্যন্ত রাস্তার দুই পাশে যখন তখন টমটম দাঁডিয়ে থাকার কারনে যত্রতত্র স্থান থেকে যাত্রী উঠানামা করার ফলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিয়ন্ত্রনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনাও করেন তারা।

কজন চালক জানান, ঈদগাঁও বাজারের বিভিন্ন মোড়ে ট্রাফিক পুলিশ থাকলে হয়তো যানজটের মত ভোগান্তিতে পড়তে হতনা বাজারবাসীকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x