ঢাকা, শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন
করোনার প্রটোকল ভেঙে বিতর্কে বিরাট-শাস্ত্রী
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

৫০ বছর পর ওভাল টেস্টে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয় পেয়েছে টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু এই জয়ের পরও ভারতের হেড কোচ রবি শাস্ত্রী এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলির উপর বেজায় ক্ষুব্ধ দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

জানা গেছে, কোভিড প্রোটোকল ভেঙে একটি বইপ্রকাশ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন দু’জনেই। যদিও সরকারিভাবে এখনো কোনো পদক্ষেপের কথা জানায়নি বিসিসিআই।

ওভাল টেস্টের চতুর্থ দিনেই রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) ভারতীয় দলের হেড কোচের ফ্লো টেস্ট পজিটিভ আসে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে আইসোলেশনে পাঠানো হয়। সংস্পর্শে আসায় আইসোলেশনে পাঠানো হয় ভারতীয় দলের বোলিং কোচ, ফিল্ডিং কোচ এবং ফিজিওকেও। এরপর সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) রবি শাস্ত্রীর আরটি-পিসিআর টেস্টও পজিটিভ আসে। এছাড়া বোলিং কোচ এবং ফিল্ডিং কোচের রিপোর্টও পজিটিভ আসে। ফলে আগামী ১০ তারিখ থেকে ম্যানচেস্টারে শুরু হতে যাওয়া পঞ্চম তথা সিরিজের শেষ টেস্টে হেড কোচকে ছাড়াই মাঠে নামবেন বিরাটরা।

আর এই ঘটনাতেই বেজায় চটেছে বিসিসিআই। কিন্তু কেন? জানা গেছে, করোনাকালেই গত সপ্তাহে একটি বইপ্রকাশ অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন কোচ রবি শাস্ত্রী এবং অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ছিলেন ভারতীয় দলের অন্যান্য সদস্যরাও। আর ওই অনুষ্ঠানে বহু মানুষ এসেছিলেন। বলতে গেলে একেবারেই লোকে লোকারণ্য ছিল। ওই ইভেন্টে স্টেজেও উঠেছিলেন শাস্ত্রী এবং কোহলি। কিন্তু বোর্ডের কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেয়নি ভারতীয় দল। আর তাতেই বেজায় চটেছে বিসিসিআই। কারণ এরপরই রবি শাস্ত্রীর কোভিড রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

বোর্ড সূত্রে খবর, কোহলিদের এমন উদাসীনতায় প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ বিসিসিআই। এরইমধ্যে ওই ইভেন্টের ছবি বোর্ড কর্মকর্তাদের কাছেও পৌঁছে গেছে। ঘটনাটির তদন্তেও নেমেছে বোর্ড। কোচ এবং অধিনায়কের কাছে এর বিস্তারিত ব্যাখাও চাওয়া হবে। এছাড়া দলের ম্যানেজারের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে।

অন্যদিকে, ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বলছে, ভারতীয় দল ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকেও কোনো অনুমতি নেয়নি।

এদিকে, ৫০ বছরের জয়খরা কাটালো ভারত, ১৫৭ রানে জিতল কোহলির দল। অর্ধশত বছর পর ওভালে সাদা পোশাকে জয় পেলো টিম ইন্ডিয়া। দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের পর ভারতীয় বোলারদের দাপটে নাস্তানাবুদ থ্রি লায়ন বাহিনী। প্রথম ইনিংসে ১৯১ রানে অলআউট হয় রবি শাস্ত্রী শিষ্যরা। জবাবে ২৯০ রানে প্রথম ইনিংসে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড।

দ্বিতীয় ইনিংস ৪৬৬ রানে শেষ হয় ভারতের। পরে, ৩৬৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করে ২১০ রানে থামে রুট বাহিনী। ম্যাচ সেরা হয়েছেন রোহিত শর্মা। সিরিজে ২-১ এ এগিয়ে গেল অতিথিরা।

লন্ডন টেস্টের চতুর্থ দিনের শুরুতেও জয়ের পাল্লা ভারী ছিল ইংল্যান্ডের দিকে। কিন্তু দ্বিতীয় সেশন শুরু হতে না হতেই টপাটপ ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলে স্বাগতিকরা। শার্দুল ঠাকুরের প্রথম আঘাতের পর আগরওয়ালের কিক থেকে থ্রো-ইনে রান আউটের শিকার হন ডেভিড মালান। এরপর ৬৩ রান করা হাসিব হামিদকে জাদেজা ও বুমরাহ অলি পোপকে সাজঘরে পাঠান। বুমরাহ শিকার করেছেন জনি বেয়ারস্টোকেও, জাদেজা নিয়েছেন মঈন আলির উইকেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x