ঢাকা, মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৮ অপরাহ্ন
তারা বাংলাদেশের অর্জনকে ঈর্ষা করে
সাক্ষাৎকারে তারেক মাহমুদঢাকা

আইসিসির নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরার পর পুরোনো সেই ছন্দটা যেন খুঁজে পাচ্ছিলেন না! সাকিব আল হাসান কি তবে হারিয়ে যাচ্ছেন, এমন শঙ্কার কথাও চলে আসছিল অনেকের মুখে। কিন্তু জিম্বাবুয়ে ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে সাকিব সেই শঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন পারফরম্যান্স দিয়েই। শুধু পারফরম্যান্স কেন, মাঠে তাঁর উপস্থিতিও এখন আগের চেয়ে বেশি প্রাণবন্ত, তরুণদের জন্য প্রেরণাদায়ক। টি-টোয়েন্টির সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান যুক্তরাষ্ট্র থেকে মুঠোফোনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কথা বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয় এবং দলে তাঁর বর্তমান ভূমিকা নিয়ে

 

প্রশ্ন:  অনেক দিন পর পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন। যুক্তরাষ্ট্রে কেমন আছেন সবাই?

 

সাকিব আল হাসান: আলহামদুলিল্লাহ ভালো আছে।

প্রশ্ন: বাচ্চারা তো অনেক দিন পরপর পাচ্ছে বাবাকে। তাদের প্রতিক্রিয়া কী?

সাকিব আল হাসান: এখন ওদেরও অভ্যাস হয়ে গেছে। বড়টা তো এখন বোঝে যে আমি কয় দিন পরপরই থাকব না, আবার কয় দিন পরপরই আসব। আমি এখানে এলে সারাক্ষণই ও আমার সঙ্গে সঙ্গে থাকে। মনে হয় আমি যেন হ্যামিলিনের বাঁশিওয়ালা! ওদের হাতে তো আর কোনো অপশনও নেই (হাসি)।

 

প্রশ্ন: জিম্বাবুয়ে ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরপর দুটি সিরিজে বাংলাদেশ দল ভালো খেলল। আপনার নিজের জন্য সিরিজ দুটি কেমন গেল?

সাকিব: দল হিসেবে আমাদের যে খুব ভালো একটা সময় গেল, এটাই গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে। বিশ্বকাপের আগে আত্মবিশ্বাস পেতে এর চেয়ে ভালো আর কিছু হতে পারে না। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সামনের সিরিজে ফলাফল যেমনই হোক, এই আত্মবিশ্বাস অনেক কাজে আসবে। নিজের জন্য সিরিজগুলো কেমন হলো, ক্যারিয়ারের এই পর্যায়ে এসে এসব নিয়ে ভাবার সুযোগ আমার নেই বলেই মনে হয়। এখন দলের কথাই আগে মাথায় আসে। দলের ভালো ফলাফলই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

 

প্রশ্ন: অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রথম সিরিজ জয়, সেটা তো নিশ্চয়ই আপনার জন্যও বিশেষ কিছু?

সাকিব: অবশ্যই। ওদের সঙ্গে আগে আমরা কখনো সিরিজ জিতিনি। সেদিক থেকে আমি খুবই আনন্দিত। এখন সম্ভবত ইংল্যান্ডই শুধু বাকি, যাদের বিপক্ষে আমরা সিরিজ জিতিনি। বাকি সব দেশের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছি এবং সব কটিতেই আমি দলের অংশ ছিলাম। এখন যদি কোনো এক সময় ইংল্যান্ডের বিপক্ষেও সিরিজ জয় আসে, সেটা হবে আরও দারুণ কিছু। আমি অবশ্যই চাইব সেই দলেও থাকতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x