ঢাকা, রবিবার ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১০:১১ অপরাহ্ন
কুষ্টিয়ায় মধ্যযুগীয় কায়দায় গ্রাম্য সালিশ 
শরিফুল ইসলাম,কুষ্টিয়া থেকেঃ
কুষ্টিয়া মিরপুরে গ্রাম্য সালিসে সাইফুল ইসলাম (২৫) নামের এক যুবককে বেদম প্রহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার সকালে কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মালিহাদ ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ড ঝুটিয়া ডাঙ্গা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে। ঘটনাটি গতকাল রোববারের হলেও আজ সোমবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর বিষয়টি প্রশাসনের নজরে আসে।
ভিডিওটি দেখে যুবককে মারধরকারী ইউপি সদস্য নওয়াব আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে গেছেন মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা।
ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা জানান, স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পেরেছি সাইফুল ইসলাম ঝুটিয়া ডাঙ্গা গ্রামের এক গৃহবধূর ঘরে রোববার দিবাগত রাতে প্রবেশ করে। এরপর গ্রামের লোকজন তাকে দেখে ফেলার পর তাকে আটকে রাখে। রোববার সকালে গ্রাম্য সালিস বসায়। সেখানে সাইফুল কে ৩০টি বেত্রাঘাত করা হয়,এবং জুতার মালা গলায় পরিয়ে সারা গ্রাম ঘুরানো হয়। এ ঘটনা আজ সোমবার সকালে ফেসবুকের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি।
মিরপুর থানা-পুলিশ তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানা হেফাজতে নিয়েছে। আটকরা হলেন-উপজেলার মালিহাদ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আকরাম হোসেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য নওয়াব আলী, আওয়ামী লীগ নেতা সিদ্দিক আলী।
ঘটনার পর থেকে সাইফুল ইসলামকে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি। তাঁকে পাওয়া গেলে ঘটনার বিস্তারিত জানা যাবে। সাইফুল অভিযোগ দিলে এ সালিসে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভিডিওতে দেখা যায় বেদম প্রহারে একপর্যায়ে সাইফুল মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। পরে সাইফুলকে জুতার মালা গলায় পড়িয়ে পুরো গ্রামে ঘোরানো হয়।

One response to “কুষ্টিয়ায় মধ্যযুগীয় কায়দায় গ্রাম্য সালিশ ”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x