ঢাকা, বৃহস্পতিবার ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন
রংপুরের তিস্তা নদীদে আবারো আকস্মিক বন‍্যা
হীমেল মিত্র অপু, স্টাফ রিপোর্টার

গত ২ দিনের টানা বৃষ্টিতে উজানের ঢলে তিস্তা নদীতে আবারো আকস্মিক ভাবে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলার তিস্তা তীরবর্তী চরগুলো প্লাবিত হয়েছে।

আজ (২১জুন) সোমবার সকাল লক্ষীটারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এর ফেসবুক থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়। এতে চরাঞ্চলের সাত টি ইউনিয়নে প্রায় ১৫,০০ পরিবারেরও অধিক পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মুনিমুল হক।

চেয়ারম্যান হাদী জানান, ইউনিয়নের পশ্চিম ইচলী, মধ্য ইচলী, জয়রামওঝা ও বাঘেরহাট আশ্রায়ন গ্রামের প্রায় ৩৫০ টি পরিবার আকস্মিক বন্যায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

কোলকোন্দ ইউনিয়নের বিনবিনা গ্রামবাসীরা জানান, গত শনিবার (২০ জুন) দিবাগত রাত থেকে তিস্তার পানি বৃদ্ধি পেয়েছে কিছু দিন আগে তিস্তার পানি বৃদ্ধির ফলে প্রবল সারারাত বিনবিনা এলাকায় সদ্য নির্মিত ১ টি উপ-বাঁধের প্রায় ১৫০ মিটার নদীগর্ভে বিলীন হয়েছে। প্রায় ৫০০ মিটার দৈর্ঘের এ বাঁধটি ইউপি চেয়ারম্যান সোহরাব আলী রাজুর নেতৃত্বে স্থানীয় জনগণের সহযোগীতায় নির্মাণ করা হয়েছিল। কোলকোন্দ ইউপি চেয়ারম্যান জানান বাধটি ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে সামান্য তিস্তার পানি বৃদ্ধি পলে তলিয়ে যায় বিনবিনা গ্রামের ১০০ পরিবারের বসতবাড়ি।

এছাড়াও বন্যার ফলে নোহালী ইউনিয়নের চর বাগডহরা, লক্ষীটারী ইউনিয়নের ইচলী, আলমবিদিতর ইউনিয়নের ব্যাংক পাড়া, বাগের হাট, মিনা বাজার, চল্লিশ সাল, জয়রাম ওঝা, মর্ণেয়া ইউনিয়নের বড় রুপাই, গজঘন্টা ইউনিয়নের ছালাপাক, ছোট রুপাই নরসিংহসহ বেশকটি এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এসব এলাকায় প্রায় আরও ১০০০ পরিবার পানিবন্দি হয়ে পরেছে।

রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসান হাবীব জানান, গত দুই দিন বৃষ্টিতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে, দ্রুতই পানি কমে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x