ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:৪৫ পূর্বাহ্ন
বরিশালে একদিনে আরও ১১ জনের মৃত্যু
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক
বরিশাল বিভাগে সর্বোচ্চ শনাক্তের দিন ১২ জনের মৃত্যু

বরিশাল বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনায় পাঁচজন ও উপসর্গ নিয়ে ছয়জন মারা গেছেন।

একই সময়ে করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৭০ জন। যা গত তিন সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন।আর এ সময়ের মধ্যে শনাক্তের দ্বিগুণ ৩৪৫ জন সুস্থতা লাভ করেছেন।

শনিবার সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিভাগীয় পরিচালক ডা. বাসুদেব কুমার দাস।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ছয়জন এবং করোনা ওয়ার্ডে করোনায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া বিভাগের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া পাঁচজনের মধ্যে বরিশালে তিন, বরগুনায় এক ও ঝালকাঠিতে একজন রয়েছেন। সব মিলিয়ে বরিশাল বিভাগে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৯০ জনে।

একই সময় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭০ জন। এ নিয়ে বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০ হাজার ৭৬২ জনে। আর এ সময়ের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৩৪৫ জন, যা নিয়ে এখন পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ২৩ হাজার ৬২৭ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে বরিশাল জেলায় নতুন ৪৭ জন নিয়ে মোট ১৬ হাজার ৭১৭ জন, পটুয়াখালীতে নতুন ২০ জন নিয়ে মোট ৫ হাজার ৫৮১ জন, ভোলায় নতুন ৯৩ জনসহ মোট পাঁচ হাজার ৬২০ জন, পিরোজপুরে নতুন সাতজনসহ মোট চার হাজার ৯৬০ জন, বরগুনায় নতুন দুজনসহ মোট তিন হাজার ৪৮৬ জন ও ঝালকাঠিতে নতুন একজন নিয়ে মোট চার হাজার ৩৯৮ জন রয়েছেন।

এদিকে, শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শুধু বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে ছয়জনের এবং করোনা ওয়ার্ডে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। যা নিয়ে শুধু শেবাচিম হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডেই উপসর্গ নিয়ে ৯০৫ জন এবং করোনা ওয়ার্ডে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৩৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করা ৯০৫ জনের মধ্যে ৫০ জনের কোভিড টেস্টের রিপোর্ট এখনও হাতে পাওয়া যায়নি।

ওই হাসপাতাল পরিচালক কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শেবাচিমের করোনার আইসোলেশন ওয়ার্ডে ১৬ জন ও করোনা ওয়ার্ডে আট ভর্তি হয়েছেন। করোনা ও আইসোলেশন ওয়ার্ডে এখন ১৯৯ জন চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে ৬০ জন করোনা ওয়ার্ডে এবং ১৩৯ জন আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আরটি পিসিআর ল্যাবে মোট ২০১ জন করোনা পরীক্ষা করান। এর মধ্যে ৩০ দশমিক ৮৪ শতাংশ পজিটিভ শনাক্তের হার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x