ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন
লুঙ্গি পরে নৌকা বাইচে পরিকল্পনামন্ত্রী, আলোচনা সমালোচনা
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

স্বজ্জন ও পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। জন্ম সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার ডুংরিয়া গ্রামে। হাওর পারের গ্রামের কাদামাটিতে বেড়ে ওঠা তার। ২০০৩ সালে যুগ্ম সচিব থেকে অবসর নেওয়ার পর রাজনীতিতে যুক্ত হন তিনি।

এমএ মান্নান চাকরি জীবনে উচ্চ পদে চাকরি করা ও অবসর জীবনে রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে প্রভাবশালী মন্ত্রী হয়েও গ্রামকে ভোলেননি। সময় ও সুযোগ পেলেই চলে আসেন জন্মস্থানে। নিজে বৈঠা হাতে নৌকা চালান তিনি। পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান সময় পেলেই বর্তমান বাড়ি শান্তিগঞ্জের পাশে নাইন্দা নদীতে একা একা বৈঠা হাতে নৌকায় চড়েন। বৃহস্পতিবার নির্বাচনী এলাকার জগন্নাথপুরে সরকারি কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ শেষে বিকালে বাড়িতে এসে লুঙ্গি গেঞ্জি পরে নাইন্দা নদীতে বেশকিছু সময় একা নৌকায় চড়েন তিনি। এসব ছবি ফেসবুকে প্রচার করে স্থানীয় লোকজন। গতকাল শুক্রবার সকালে শান্তিগঞ্জ উপজেলার বীরগাঁও গ্রামের ৬০ হাত লম্বা ‘বীর বাংলা’ দৌড়ের নৌকা নিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর গ্রামে এলে ভিড় করেন স্থানীয়রা। ‘বীর বাংলা’ নৌকা দেখে উচ্ছ¡সিত হন মন্ত্রী এমএ মান্নান। একপর্যায়ে লুঙ্গি গেঞ্জি পরে নিজ আগ্রহেই দৌড়ের নৌকায় অগ্রভাগে উঠে পড়েন তিনি। এর পর ‘বীর বাংলা’ নৌকাটি মন্ত্রীকে নিয়ে কিছু জায়গা প্রদক্ষিণ করে। এ সময় বীর বাংলার বাইছের লোকজন মন্ত্রীকে সারি গান শুনান।

পরিকল্পনামন্ত্রী বললেন, ‘এলাকার মানুষ একটা সুন্দর নৌকা তৈরি করেছেন। আনন্দ করতে তারা নৌকাটি নিয়ে শান্তিগঞ্জে এসেছিল। তাদের অনুরোধে নৌকায় উঠেছি। তারা একটা নৌকা বাইছের আয়োজন করতে চায়। থানার ওসির ও ইউএনওর সঙ্গে কথা বলে আগামী মাসে আয়োজন করতে বলেছি।’

মন্ত্রী আরও বলেন, জন্মের পর থেকেই নৌকা দেখে আসছি, নৌকার সঙ্গে পরিচয়। হাওর ও নৌকা দেখে বড় হয়েছি। আগের গ্রামের গরিব-ধনী সবারই ঘাটে ছোট-বড় নৌকা ছিল। আমার নিজের ছোট একটা ডিঙ্গি নৌকা আছে। কাঠ কিনে মিস্ত্রি দিয়ে নৌকাটি তৈরি করেছি। এটি হাতে চালানো যায়। আমি নৌকা বাওয়া (চালানো) খুব পছন্দ করি। বাড়িতে এলে নৌকাটি নিয়ে বাওয়ার চেষ্টা করি।

 

আলোচনা সমালোচনা:

নিঃস্বার্থ-নির্লোভ-নিরহঙ্কার পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান সাধারণ মানুষের সাথে মিশতে গিয়ে পড়েছেন সমালোচনার মুখে। শোকের মাস আগস্টে এমন আনন্দ অনুষ্ঠান নিয়ে চলছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা সমালোচনা।

আগস্ট মাসে বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করে স্বাধীনতাবিরোধী চক্র। এছাড়াও একুশে আগষ্ট গ্রেনেড হামলা সহ নানা কারণে আগষ্ট মাসকে আওয়ামী লীগ শোকের মাস হিসেবে পালন করে।

জাতির পিতার প্রতি সম্মান জানিয়ে এ মাসে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা জন্মদিন পালন, ফুলেল শুভেচ্ছা সহ সব ধরণের আনন্দ অনুষ্ঠান বর্জন করে থাকেন।

গতকাল শুক্রবার (১৩ আগষ্ট) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সুনামগঞ্জে নৌকা বাইচের একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়। ভিডিয়োতে দেখা যায়- পরিকল্পনামন্ত্রী বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা, ফুর্তি ও আমেজ নিয়ে নৌকা বাইচ উপভোগ করছেন।

আর এ নিয়ে আলোচনা আর সমালোচনার মুখে পড়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী।

তথ্যসূত্র: আমাদেরসময়

One response to “লুঙ্গি পরে নৌকা বাইচে পরিকল্পনামন্ত্রী, আলোচনা সমালোচনা”

  1. … [Trackback]

    […] Read More to that Topic: doinikdak.com/news/47198 […]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x