ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন
খুলনায় ঘণ্টায় ১ জনের মৃত্যু
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

খুলনার ৪ হাসপাতালে গত ২ দিন মৃত্যুর সংখ্যা কমে আসছিল, কিন্তু হটাৎ করেই গত ২৪ ঘণ্টায় দ্বিগুন প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। খুলনার চারটি হাসপাতালে করোনায় ও উপসর্গে ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ২৪ মৃত‌্যু, অর্থাৎ গড়ে প্রতি ঘণ্টায় ১ জ‌নের মৃত‌্যু।

শনিবার (১৭ জুলাই) সকাল ৮টা থেকে রোববার (১৮ জুলাই) সকাল ৮টা পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

 

খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে ৮ জন করোনায় ও ৭ জন উপসর্গে, খুলনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২ জন, শহীদ শেখ আবু নাসের হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজন এবং গাজী মেডিকেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। প্রসঙ্গত্ব, গতকাল শনিবার ও শুক্রবার পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় খুলনার চারটি হাসপাতালে ১১ ও ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

রোববার (১৮ জুলাই খুলনা ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের ফোকাল পারসন ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৮ জন ও উপসর্গ নিয়ে ৭ জন মিলে মোট ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালটিতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ২০৬ জন। যার মধ্যে রেড জোনে ১৪১ জন, ইয়ালো জোনে ২৬ জন, আইসিইউতে ২০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৭ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩৫ জন।

খুলনার শহীদ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতালের করোনা ইউনিটে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডা. প্রকাশ দেবনাথ। মৃতরা হলেন, খুলনার দিঘলিয়ার সোলাইমান (৮০), পাইকগাছার সামিরুদ্দিন (৭৫) ও যশোরের শর্শার জামতলার কুতুবুদ্দিন (৬৬)। হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ভর্তি রয়েছেন ৪২ জন। তার মধ্যে আইসিইউতে রয়েছে ১০ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ৩ জন আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ জন।

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের ৮০ শয্যার করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন, খুলনার বটিয়াঘাটার সুচিত্রা (৬০) ও নড়াইল লোহাগড়ার শামসুন্নাহার (৫৫)। এছাড়া চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৬ জন, তার মধ্যে ২৯ জন পুরুষ ও ৩৭ জন নারী। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১৪ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ জন।

গাজী মেডিকেল হাসপাতালের স্বত্বাধিকারী ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলেন, খুলনার কয়রা উপজেলার হাতিয়ারডাঙ্গার নীতিশ কুমার বাছাড় (৬৫), তেরখাদার জুনারীর দাউদ আলী তালুকদার (৮০), ফুলতলা শিরোমনির মিয়া মাহমুদুর রহমান (৯১) ও যশোর সদরের রোজি (৬৫)। বেসরকারি এ হাসপাতালের চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো ৯৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১২ জন এবং সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৭ জন। গতকাল এ হাসপাতালে ৬৪ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৩জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

2 responses to “খুলনায় ঘণ্টায় ১ জনের মৃত্যু”

  1. … [Trackback]

    […] Find More on to that Topic: doinikdak.com/news/37529 […]

  2. … [Trackback]

    […] Read More Info here to that Topic: doinikdak.com/news/37529 […]

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x