ঢাকা, শনিবার ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৪৯ অপরাহ্ন
তেঁতুলিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে ২০০ অবৈধ দোকান উচ্ছেদ
মেহেদী হাসান, পঞ্চগড় থেকে

দৈনিক ডাকঃ পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া-বাংলাবান্ধা জাতীয় মহাসড়ক সংলগ্ন সড়ক ও জনপথ বিভাগের সরকারি জায়গার উপর অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে বাংলাবান্ধা (বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন), সিপাইপাড়া ও তিরনই এই ৩টি বাজারের ২ শতাধিক দোকান। এর পাশেই রয়েছে দেশের অন্যতম বৃহৎ ও চর্তুদেশীয় বাণিজ্য কেন্দ্র বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর এবং ইমিগ্রেশন চেকপোস্ট। উক্ত স্থলবন্দর ব্যবহার করে প্রতিদিন আমদানি-রপ্তানীকৃত সহস্রাধিক পণ্যবাহী ট্রাকসহ অন্যান্য সকল যানবাহন এন-৫ লেভেলের এই মহাসড়কটি দিয়ে সার্বক্ষণিক দ্রুত গতিতে চলাচল করে থাকে।

এতে, পরিস্থিতিতে সাধারণ পথচারী বা যানবাহন দাঁড়ানোর মত মহাসড়কের ধারে ১ ফুট জায়গা নেই। প্রতিটি বাজারে পার্শ্ববর্তী স্থানে সরকারি হাটের জায়গায় দোকান করার জন্য ব্যবসা ভিত্তিক পর্যাপ্ত নির্দিষ্ট স্থান, প্রয়োজনীয় অবকাঠামো হাটশেড ওয়াশব্লক থাকলেও বাজার চলমান না থাকায় অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছে। তবুও জীবনহানির শংকা নিয়ে বাংলাবান্ধা (বিজিবি ক্যাম্প সংলগ্ন), সিপাইপাড়া ও তিরনই বাজারে সরকারি রাস্তার জায়গার উপর অবৈধভাবে দোকান দিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করেন ২ শতাধিক দোকান। এ অবস্থায় রাস্তা উপর সার্বক্ষণিক জনসমাগম থাকায় প্রায়ই ছোট বড় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাচ্ছেন অনেকেই।

এরই পেক্ষাপটে চলমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় হাট-বাজারে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) তেতুলিয়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বাংলাবান্ধা, সিপাইপাড়া ও তিরনই বাজারে রাস্তার উভয় পার্শ্বে থাকা প্রায় ২ শতাধিক দোকান পার্শ্ববর্তী স্থায়ী সরকারি হাট শেডের ফাকা জায়গায় স্থানান্তর করা হয়।

তবে,সকাল ৯টা থেকে স্থানান্তর কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং পর্যায়ক্রমে সকল দোকানদারকে আজই স্থানান্তর করা হবে।

এ সময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কাজী মাহমুদুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ চন্দ্র সাহা, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাসুদুল হক, তেঁতুলিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবু ছায়েম মিয়াসহ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত থেকে হাটে নির্ধারিত জায়গা দোকানদারদের বুঝিয়ে দেন।

এতে মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি করোনাকালীন সময়ে বাজার ও রাস্তার উপর অহেতুক জনসমাগম এড়াতে এবং সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে মনে করছে প্রশাসন।

এদিকে, দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনকভাবে দিন দিন বেড়েই চলেছে। চলমান এই করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ সরকার ঘোষিত চলমান লকডাউনের নির্দেশনা মেনে কাজ করে যাচ্ছেন তেঁতুলিয়া উপজেলা প্রশাসন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই অভিযান পরিচালনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x