ঢাকা, সোমবার ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:২১ পূর্বাহ্ন
শনিবার থেকে পাঁচ দেশে সপ্তাহে শতাধিক বিশেষ ফ্লাইট
Reporter Name

লকডাউনে আটকে পড়া প্রবাসী কর্মী এবং অন্য যাদের জরুরি প্রয়োজনে বিমান ভ্রমণ করতে হবে তাদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট চালু হচ্ছে শনিবার থেকে। তবে এর জন্য কিছু শর্ত পূরণ করতে হবে। খবর বিবিসির।

সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও সিঙ্গাপুরে গমনেচ্ছু যেসব কর্মী আটকা পড়েছেন তাদের জন্য আগামীকাল ১৭ এপ্রিল থেকে এই বিশেষ ফ্লাইট চালু হবে। এই পাঁচ দেশ ছাড়া অন্যান্য দেশে যারা জরুরি প্রয়োজনে যেতে চান তারাও বিশেষ ফ্লাইটে যেতে পারবেন।

লকডাউন চলাকালে উল্লিখিত ৫টি দেশ ব্যতীত অন্যান্য দেশে যারা জরুরি প্রয়োজনে যেতে ইচ্ছুক, তারা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ছাড়পত্র সাপেক্ষে ট্রানজিট-প্যাসেঞ্জার হিসেবে বিশেষ ফ্লাইটে ভ্রমণ করতে পারবেন।

বিশেষ ফ্লাইটে যেসব শর্ত মানতে হবে:

প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের মধ্যে যাদের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ইস্যু করা বিএমইটি ক্লিয়ারেন্স রয়েছে, তাদেরকে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ৫ দেশের ক্ষেত্রে যাদের ভিজিট ভিসা আছে, কিন্তু বিএমইটি ক্লিয়ারেন্স নেই, তারা বিদেশ গমনে অগ্রাধিকার পাবেন না।ভিজিট ভিসা নিয়ে যেসব বাংলাদেশি কাজের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত যাবেন, তারা বিএমইটি’র ছাড়পত্র নিয়ে যেতে পারবেন।

যারা দেশে আসবেন তাদের যা করতে হবে:

প্রবাসী বাংলাদেশিরা জরুরি প্রয়োজনে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের শর্তে দেশে আসতে পারবেন। প্রত্যেক যাত্রীকে কোভিড নেগেটিভ সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলকভাবে প্রদর্শন করতে হবে। বিদেশ থেকে ফেরত যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতের জন্য সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ দিয়াবাড়ি, চট্টগ্রাম ও সিলেটে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিয়ে রাখবে।

এছাড়া বৈঠকে কাতার ও ওমানে ক্রমহ্রাসমান করোনা সংক্রমণের বিষয় বিবেচনায় নিয়ে নিষিদ্ধ দেশসমুহের তালিকা থেকে এই দেশ দু’টিকে প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ভার্চুয়াল প্লাটফর্মে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার মন্ত্রী পর্যায়ের জরুরি আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় এই বৈঠকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংযুক্ত ছিলেন। সেখানে সিদ্ধান্ত হয় প্রবাসী কর্মীদের গন্তব্য দেশে পাঠানোর জন্য বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সসহ বাংলাদেশি অন্যান্য এয়ারলাইন্স এবং সংশ্লিষ্ট দেশসমুহের ন্যাশনাল ক্যারিয়ারসহ অন্যান্য ক্যারিয়ার বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x