ঢাকা, সোমবার ১৭ জুন ২০২৪, ০৮:১২ পূর্বাহ্ন
উদ্বোধনের অপেক্ষায় দেশের সবচেয়ে বড় ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতাল
Reporter Name

আগামী রোববার (১৮ এপ্রিল) রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালটি আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হবে।

ওই হাসপাতালটিতে স্থাপন করা হয়েছে ১০০ শয্যার আইসিইউ এবং ১১২টি এইচডিইউ। এছাড়া রোগীদের জন্য রয়েছে সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহের।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্টরা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এই হাসপাতাল চালু হচ্ছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরশনের (ডিএনসিসি) মহাখালী কাঁচাবাজারের (ছয় তলা) এক লাখ ৮০ হাজার ৫৬০ বর্গফুট আয়তনের ফাঁকা ভবনে। এতদিন ওই মার্কেটটি ব্যবহৃত হতো করোনা আইসোলেশন সেন্টার এবং বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ল্যাব হিসেবে। এখন করোনা হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু হলেও পৃথকভাবে চলবে করোনা আইসোলেশন সেন্টার এবং বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষার ল্যাবের কার্যক্রমও।

স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিশেষায়িত ওই হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা দিতে ৫০০ চিকিৎসক, ৭০০ নার্স, ৭০০ স্টাফ এবং ওষুধ, সরঞ্জামের ব্যবস্থা করেছে। ইতিমধ্যে কাজে যোগ দিয়েছেন শতাধিক চিকিৎসক ও দুই শতাধিক নার্স। শনিবারের মধ্যে কাজে যোগ দেবেন বাকিরা। তবে হাসপাতালটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দ্বারা পরিচালিত হবে বলেও সূত্রটি জানায়।

এ বিষয়ে ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতালটি আগামীকাল শনিবার (১৭ এপ্রিল) উদ্বোধনের কথা থাকলেও কিছু কাজ বাকি রয়েছে। সেজন্য একদিন পিছিয়ে রোববার উদ্বোধন করা হবে। আপাতত ওই হাসপাতালে কেবলমাত্র করোনার চিকিৎসা দেয়া হবে। তবে কোনও অপারেশন করা হবে না বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৯ আগস্ট করোনা আইসোলেশন সেন্টার পরিদর্শনে গিয়ে ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম মহাখালীর ওই মার্কেটটিকে ৫০০ শয্যার আরবান (নগর) হাসপাতালে রূপান্তরের ঘোষণা দেন। ওই ঘোষণার আট মাসের মাথায় শুরু হচ্ছে যাচ্ছে ডিএনসিসি ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা কার্যক্রম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x