ঢাকা, শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন
ফজলে হোসেন বাদশাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে
Reporter Name

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রাজশাহী-২ আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) ও ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল থেকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে হেলিকপ্টারে তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়।

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস বলেন, সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশার চিকিৎসায় ১৪ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. খলিলুর রহমানকে প্রধান করে এ মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছিল। পরে মেডিকেল বোর্ডের বৈঠকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। এর পর দুপুর ২টার দিকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার জন্য তাকে হাসপাতাল থেকে বের করা হয়।

ডা. সাইফুল আরও বলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বুধবার রাত ৯টার দিকে ফজলে হোসেন বাদশা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতালের ভিআইপি কেবিনে তাকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। ভর্তির সময় তার অক্সিজেন স্যাচুরেশনের লেভেল ৯৭ থেকে ৯৮ শতাংশের মধ্যে ওঠানামা করছিল। তার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে। তবে তার ডায়াবেটিকসহ অন্য কিছু সমস্যা রয়েছে। বিশেষ করে ডিডাইমার রিপোর্ট অস্বাভাবিক এসেছে। তাই তার উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক দেবাশীষ রায় দেবু জানান, রাজশাহীতে সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশাই প্রথম ব্যক্তি যিনি দুই ডোজ করোনার টিকা সবার আগে নিয়েছিলেন। দুই ডোজ করোনার টিকা নেওয়ার পর তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন।

তিনি আরও জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারি প্রথম ডোজ এবং ৮ এপ্রিল করোনার দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেন এমপি বাদশা। দ্বিতীয় ডোজ টিকা নেওয়ার পর থেকেই তার হালকা জ্বর আসে। ১২ এপ্রিল থেকে তার তীব্র জ্বর শুরু হয়। এরপর গত মঙ্গলবার তিনি নমুনা দেন। বুধবার পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x