ঢাকা, সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২০ অপরাহ্ন
এক নিরীহ ব্যক্তিকে পিঠিয়ে রক্তাক্ত, থানায় অভিযোগ দায়ের
Reporter Name
তাহিরপুরের বালজুরী গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে এক নিরীহ ব্যক্তিকে পিঠিয়ে রক্তাক্ত, থানায় অভিযোগ দায়ের

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ তাহিরপুর উপজেলার বালিজুরী ইউনিয়নে বালিজুরী গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের  হামলায় এক জন আহত হয়েছেন। আহতের নাম সৈয়দ আলী(৬০) । সে ইউনিয়নের বালিজুরী গ্রামের মৃত আঃ সত্তারের ছেলে। ঘটনাটি ঘটে গত ১৫ই এপ্রিল বৃহস্প্রতিবার সন্ধ্যায় বালিজুরী গ্রামের সৈয়দ আলীর বাড়িতে। এ ঘটনায় পরেরদিন আহতের স্ত্রী  শেলিয়া বেগম নিজে বাদি হয়ে নামাংঙ্কিত ৭ জনের নাম উল্লেখ করে তাহিরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। আহতের ন্ত্রী বাদি হয়ে বালিজুরী গ্রামের হামলাকারী আব্দুল কাদির,তার সহযোগি হাইউল মিয়া, রফিক মিয়া, রামিম মিয়া,তামিম মিয়া,জাহেদ মিয়া, কাদির মিয়া, আব্দুল খালেক, সুলেমান মিয়াসহ ৭জনের নাম উল্লেখ করে তাহিরপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়  একই গ্রামের পাশের বাড়ির বাসিন্দা  প্রভাবশালী আব্দুল কাদিরগংদের বাড়ির পাশাপাশি সৈয়দ মিয়া বাড়ি হওয়ায় সৈয়দ মিয়ার পরিবারের সদস্যদের বিভিন্নভাবে ক্ষতি সাধনের জন্য যেকোন কিছুর অজুহাতে লাগালাগি করে আসছেন। একটি মুরগীকে ঢিল ছুড়া হয়েছে এমন অভিযোগ তুলে ঘটনার দিন নিরীহ সৈয়দ মিয়াকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে অভিযুক্ত আব্দুল কাদির ও তার সহযোগি হাইউল মিয়া, রফিক মিয়া, রামিম মিয়া,তামিম মিয়া,জাহেদ মিয়া, কাদির মিয়া, আ: খালেক, সুলেমান মিয়াসহ ২০ জনের একটি সন্ত্রাসীদল দেশীয় অস্ত্র নিয়ে নিরীহ সৈয়দ মিয়ার বাড়িতে প্রবেশ করে তার উপর পরিল্পিত হামলা চালায় এবং পিঠিয়ে রক্তাক্ত জখম করে গুরুতর আহত করে বাড়িঘরে হামলা,ভাংচুর ও নগদ ৪০ হাজার টাকা লুঠপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় ঘরের টিনের বেড়ায় দা দিয়ে কুপিয়ে আরো ১০ হাজার টাকার ক্ষতিসাধন করে বলে অভিযোগপত্রে উল্লখ করা হয়। এ সময় আহত সৈয়দ মিয়ার পরিবারের লোকজনের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। তখন সৈয়দ মিয়াকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্রে এনে এ ভর্তি করা হয়।

বর্তমানে হামলাকরীদের ভয়ে সৈয়দ মিয়া ও তার পরিবারের লোকজন ভয়ে আতংঙ্কের মধ্যে রয়েছে আবার যে কোন সময় সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হওয়ার কথা জানিয়েছেন সৈয়দ মিয়া ও তার পরিবার।

এ ব্যাপারে হামলাকারী রফিক মিয়ার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান একটি মুরগীকে ঢিল ছুড়া নিয়ে কথা কাটাকাটি হলেও হামলার ঘটনা ঘটেনি বলে দাবী করেন।

এ ব্যাপারে তাহিরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল লতিফ তরফদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে জানান অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x