ঢাকা, শনিবার ২২ জুন ২০২৪, ০৮:০৮ পূর্বাহ্ন
ওবায়দুল কাদেরকে কোম্পানীগঞ্জে আসতে দেবেন না কাদের মির্জা
Reporter Name

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে তাঁর নির্বাচনী এলাকা নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের মাটিতে আসতে দেবেন না ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা। আজ শুক্রবার বিকেলে ফেসবুক লাইভে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জা এ ঘোষণা দেওয়ার পাশাপাশি অভিযোগ করেছেন, ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে তাঁকে বসুরহাট পৌরসভায় পুলিশ অবরুদ্ধ করে রেখেছে।

এর আগে শুক্রবার দুপুরের দিকে আরেকটি ফেসবুক লাইভে কাদের মির্জা বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে বলেছেন, ‘গতকালও বাদল (মিজানুর রহমান) আপনাকে গালাগাল করেছে, রাজাকারের সন্তান বলেছে রুপালী চত্বরে প্রকাশ্যে; আপনার শরম আছে? লজ্জা আছে? শরম থাকলে আপনি রিজাইন দিয়ে ঢাকায় উঠে যাইতেন। আপনি দলকেও ক্ষতিগ্রস্ত করছেন। আমি সবাইকে চিনি, ওপর থেকে নিচ পর্যন্ত।’

বিকেলের ফেসবুক লাইভে কাদের মির্জা বলেন, ‘আজকে আমার বিরুদ্ধে পুলিশ, প্রশাসন লেলিয়ে দিয়েছে, এটা কিসের ইঙ্গিত বহন করে? আমি জানতে চাই। আপনি যতই ষড়যন্ত্র করেন ওবায়দুল কাদের সাহেব, আমার মুখ বন্ধ করতে পারবেন না। গ্রেপ্তার করে গুলি করে মেরে ফেলবেন?

কাদের মির্জা অভিযোগ করেন, ‘ওবায়দুল কাদের প্রশাসনের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ না করে তাঁর স্ত্রীকে বাঁচানোর জন্য ব্যস্ত। তাঁর দুর্নীতিবাজ স্ত্রী বাঁচতে পারবেন না। কোনো সুযোগ নেই। আজকে গরিব কর্মীরা দুই বেলা খেতে পারেন না। তাঁদের জেলে যেতে হয়। ওসি তাঁদের এখানে এনে মারধর করেন। একরাম-নিজামের সন্ত্রাসীরা ও ইশারাতুন্নেসা কাদেরের সন্ত্রাসীরা আজকে সব করছে।’

কাদের মির্জা বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আপনার অস্তিত্ব এই কোম্পানীগঞ্জের মানুষ একদিন শেষ করে ফেলবে। আপনাকেও ছেড়ে দেবে না। কোম্পানীগঞ্জের মাটিতে এটার সমাধান যদি না হয়, আপনি আসতে পারবেন না। প্রয়োজনে আমার রক্ত ঝরবে। আমার পরিবারের সদস্যদের রক্ত ঝরবে। আপনাকে কোম্পানীগঞ্জের মাটিতে আর আসতে দেব না।’

বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে কাদের মির্জা প্রায় ১৫ মিনিটের ফেসবুক লাইভ বক্তৃতায় আরও বলেন, ‘তুমি জেলে দেবে, হত্যা করবে? তোমাকে আমরা ভয় করি না। তোমার খাইও না, পরিও না। তোমার কারণে আমার একটা ভাই ফাঁস নিয়ে মারা গেছে। আজ তোমার স্ত্রী হাজার হাজার কোটি টাকার মালিক হয়েছে। তোমার শ্বশুরপক্ষের লোকজন হাজার কোটি টাকার মালিক

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x