ঢাকা, শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন
বেনাপোল বন্দর দিয়ে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে বাংলাদেশি রপ্তানি বাণিজ্য ব্যাহত হচ্ছে
আনোয়ার হোসেন।

সি এন্ড এফ ব্যবসায়ী গন জানান, বেনাপোল স্হল বন্দর থেকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে অল্প সময়ে আমদানি রফতানি বানিজ্য করা যায়।সেকারণে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীরা গন এপথে বানিজ্য করতে আগ্রহী বেশি। করোনা সংক্রমন হার কমে আসায় বেনাপোল স্হল বন্দর দিয়ে বেড়েছে বানিজ্য। বেনাপোল স্থলবন্দরের অবকাঠামো কিছুটা উন্নয়ন হলেও ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের অবকাঠামো তেমন উন্নয়ন হয়নি। ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে জায়গা সংকট সহ নানা সমস্যায় ব্যাহত হচ্ছে রফতানি বানিজ্য। ফলে বন্দর এলাকায় দিনের পর দিন রফতানি পণ্য নিয়ে প্রায় দুই কিলোমিটারেরও অধিক এলাকা জুড়ে দাঁড়িয়ে থাকছে পণ্য বোঝাই ট্রাক। এতে বেনাপোল স্হল বন্দর ও  বেনাপোল বাজার এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে ব্যাপক যানজট।

সোমবার (১৩সেপ্টেম্বর) ভারতে যাওয়ার জন্য অপেক্ষায় আছে বেনাপোল স্হল বন্দর এলাকায় দাঁড়িয়ে রয়েছে প্রায় ৮০০ ও অধিক রফতানি পণ্য বোঝাই ট্রাক। বেনাপোল স্হল বন্দর এলাকায় প্রতিদিন সৃষ্টি হচ্ছে যানজট ।

রফতানি পণ্যবাহী বাংলাদেশি ঢাকা-মেট্রো-ট১৪-৬৯৬৭ ট্রাকচালক সিরাজুল ইসলাম জানান, রফতানি পণ্য নিয়ে ৫ দিন ধরে বেনাপোল স্হল বন্দর এলাকায় দাঁড়িয়ে আছি। এখনও পর্যন্ত পণ্য নিয়ে ভারতে ঢুকতে পারিনি। আমরা অনেক দুর থেকে এসেছি। এখানে খাওয়া গোসলের অনেক সমস্যা। আমরা দিনের পর দিন ভারতে পণ্য আনলোড করে নিজেদের গন্তব্য স্থলে ফিরতে চাই অনেক অসুভিধা হচ্ছে।

বেনাপোল আমদানি-রফতানি সমিতির সহ-সভাপতি আমিনুল হক জানান, বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে রফতানি বানিজ্য বেড়েছে। কিন্তু ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় আমাদের চাহিদার মত রফতানি হচ্ছে না।

বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দিন গাজী বলেন, সারা স্হল বন্দর এলাকা জুড়ে ট্রাকের যানজট বেধে আছে। বেনাপোল স্হল বন্দর এলাকায় প্রায়  দুই কিলোমিটার জুড়ে রফতানি গাড়ী গুলো দাঁড়িয়ে রয়েছে ভারতে প্রবেশের অপেক্ষায়। বাইসাইকেলও চলার মতও জায়গা নেই এখানে। মানুষ চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে বেনাপোল স্থল বন্দর সহ বেনাপোল বাজার এলাকায়।

বেনাপোল স্থলবন্দর পরিচালক মো. মনিরুজ্জামান জানান, বেনাপোল স্হল বন্দর দিয়ে ভারতে রফতানির পরিমান অনেক গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। যার কারণে বন্দরে পণ্যজটের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা ভারতের পেট্রাপোল বন্দর কর্তৃপক্ষের সাথে কথা হয়েছে অচিরেই সমস্যার সমাধান হবে বলে তারা জানিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x