ঢাকা, মঙ্গলবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৪০ অপরাহ্ন
একদিকে খাবার নেই, অন্যদিকে টাকা অভাবে সু-চিকিৎসা পাচ্ছেন না ডলি বেগম
সাইফুল ইসলাম' মৌলভীবাজার প্রতিনিধি

পেটে মধ্য টিউমার আক্রান্ত ৪৫ বছর বয়সি ডলি বেগম অসুস্থ দীর্ঘদিন ধরে। ঘরে খাবার নেই, টাকা পয়সা নেই, যে বয়সে ডলি বেগম একটু বিশ্রাম নেওয়ার কথা ছিল আজ তিনি প্রচণ্ড অসুস্থ অবস্থায় বাসা-বাড়ী বিছানায় শয্যাশায়ী। বৃদ্ধ বয়সে ডলি একটাই আকুতি আমি বাঁচতে চাই, আমি থাকতে চাই সুন্দর এই পৃথিবীর বুকে আপনাদের মাঝে।

গত ৪/৫ বছর যাবত তিনি ভোগছিলেন বিভিন্ন জটিল রোগে।গত (১১/০৮/২০২১) তিনি পেটের টিউমার, তাকে প্রথমে জুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসা করান। এরপরে গত (১২/০৮/২০২১) কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পপুলার হাসপাতালে সেখানে টাকার অভাবে কোন পরীক্ষা – নিরীক্ষা করতে না পারায় আবারও বাসা-বাড়িতে চলে আসেন। গত ১৫/০৮/২০২১ আবারো তাঁর অবস্থা অবনতি হলে এলাকাবাসী পাঁচ হাজার টাকা সাহায্য তুলে তাঁকে নিয়ে গেছেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ব্রেফার করলে সেখানে টাকার অভাবে কোন পরীক্ষা – নিরীক্ষা করতে না পারায় আবারও বাসায়-বাড়িতে চলে আসেন।

ডলি বেগমর (৪৫) বাসা-বাড়ী জুড়ী উপজেলার পশ্চিমজুড়ী ইউনিয়নের হরিরামপুর গ্রামে।অসুস্থ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত তিনি আইডিয়াল একাডেমী স্কুল আয়্রার হিসেবে কাজ করতেন। ৫/৬ বছর যাবত অসুস্থ থাকার অন্যের সাহায্য নিয়ে চলত ডলি জীবন।সাহায্য পেলে খেতেন, সাহায্য না পেলে অনেক সময় না খেয়েই থাকতেন।যেখানে দু-বেলায় দুমুঠোয় ভাত খাওয়াই অনেক দুঃসাধ্য সেখানেই চিকিৎসা করা অনেকটা স্বপ্নের মত। বর্তমানে গুরুতর অসুস্থ হওয়ায় এলাকাবাসী মিলে সাহায্য তুলে কিছুটা চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন।তার চিকিৎসার জন্য বর্তমান প্রয়োজন অনেক টাকা।

ডলি গরীব-কর্মহীন মানুষের কষ্ট ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী হাহাকার

সংশ্লিষ্টরা জানান, খরচ করতে হয় টাকা। সাংসারিক অভাব অনটনের কারণে চিকিৎসা ব্যয় ভার বহন করতে পারছেন না। যা পরিবারের পক্ষে বহন করা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে।

হতদরিদ্র ডলি বেগমকে বাঁচতে সাহায্য করুন

সাহায্য পঠাতে পারেন, মোঃ রনি আহমেদ।

বিকাশ পর্সোনাল:০১৭৭৬০-৮২১৫৫

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x