ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন
আমতলীতে হতদরিদ্রদের চেয়ারে বসিয়ে ওএমএসের চাল ও আটা বিক্রি!
এম এ সাইদ খোকন আমতলী(বরগুনা)

বরগুনার আমতলীতে মহামারি করোনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত প্রণোধনা প্যাকেজের আওতায় এবং উপজেলা খাদ্য অধিদপ্তরের পরিচালনায় হতদরিদ্রদের জন্য ন্যায্যমূল্যে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রয় কার্যক্রম চলমান রয়েছে। পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের (ওএমএস) ডিলার মোঃ বশির উদ্দিন হতদরিদ্র ক্রেতাদের চেয়ারে বসিয়ে ওই চাল ও আটা বিক্রি করে প্রশংসায় ভাসছেন।

জানা গেছে, মহামারি করোনাভাইরাস ও ধাপেধাপে লকডাউনের কারনে হতদরিদ্র পরিবারগুলোর মধ্যে ন্যায্যমূল্যে (ওএমএস) চাল ও আটা বিক্রয় করা জন্য বিশেষ প্রণোধনা প্যাকেজের আওতায় চাল ও আটা বিক্রির উদ্যোগ নেয় সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২৫ জুলাই থেকে শুক্রবার ব্যতিত প্রতিদিন উপজেলাসহ পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে চাল ও আটা বিক্রির কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

সরেজমিনে আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে পৌরশহরের ২নং ওয়ার্ডের (ওএমএস) ডিলার মোঃ বশির উদ্দিনের চাল ও আটা বিক্রি কার্যক্রম দেখতে গিয়ে দেখা যায়, ন্যায্যমূল্যে কিনতে আসা গ্রাহকদের চেয়ারে বসিয়ে মুখে মাস্ক পড়িয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে একেক জনকে ডেকে চাল ও আটা বিক্রি করছেন। জনপ্রতি ৫ কেজি করে চাল ও আটা বিক্রি করছেন। প্রতিদিন ৩০০ জন এ সুবিধা পাচ্ছেন।

কথা হয় চাল ও আটা কিনতে আসা ক্রেতা হতদরিদ্র বৃদ্ধ মোঃ নাসির উদ্দিন (৭২) ও আমেনা বেগমের (৫৫) সাথে। তারা জানায়, শুরুর দিন থেকে এখানে আমরা চাল ও আটা কিনতে আসি। প্রথম দিন আমাদের মত অনেক বৃদ্ধ পুরুষ ও মহিলা কষ্ট করে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকে। বিষয়টি দেখে এবং আমাদের কষ্ট লাগবে দ্বিতীয় দিন থেকে ডিলার আমাদের জন্য চেয়ারে বসার ব্যবস্থা করেন। সেই থেকে প্রতিদিন আমরা চেয়ারে বসে আটা ও চাল কিনতেছি। আমরা তার জন্য দোয়াকরি আল্লাহ যেন তাকে ভালো রাখে।

স্থাণীয় ও প্রত্যক্ষদশর্শিরা ডিলারের প্রসংশা করে জানায়, এই প্রথম দেখলাম হতদরিদ্র পুরুষ ও মহিলাদের আলাদা আলাদা ভাবে চেয়ারে বসিয়ে ওএমএসের চাল ও আটা বিক্রি করছে।

ওএমএস ডিলার মোঃ বশির উদ্দিন বলেন, চাল ও আটা বিক্রির প্রথম দিন বয়োবৃদ্ধ পুরুষ ও মহিলারা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতে পা ব্যথা হয়ে এক সময় মাটিতে বসে পড়ে। বিষয়টি দেখে আমার খুব খারাপ লেগেছিলো। তখনি সিন্ধান্ত নেই পরের দিন থেকে চাল ও আটা কিনতে আসা ক্রেতাদের জন্য আমি চেয়ারে বসার ব্যবস্থা করবো। সেই থেকে তাদের চেয়ারে বসিয়ে চাল ও আটা বিক্রি করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x