ঢাকা, সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন
শ্রীনগরে গর্ভবতীকে মারপিট করে গর্ভপাত
শ্রীনগর(মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে জমিজমা নিয়ে বিরোধের জের ধরে এক গর্ভবর্তী গৃহবধুসহ তার স্বামীকে মারপিট করে গর্ভবর্তীকে গর্ভপাত ঘটানোসহ ২ জনকে আহত করা হয়েছে।

গত সোমবার(২৬ জুন) দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের বাঘড়া এলাকায় এ মারপিট কর গর্ভপাত ঘটানো হয়। স্থানীয়রা আহত গর্ভবর্তী গৃহবধু কাজল রেখা ও তার স্বামী আলতাফ হোসেনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। এব্যাপারে আহত গৃহবধু কাজল রেখা বাদী হয়ে অহিদুল(২৫)সহ ৬জনকে বিবাদী করে থানায় অভিযোগ দিলে শ্রীনগর থানার মামলা নং-০৬(০৭)২১ ধারা-১৪৩/৪৪৭/৩২৩/৩১৩/৫০৬/১১৪ পিসি রেকর্ড হয়।

গৃহবধূ বাদীনি কাজল রেখার দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা যায়, গৃহবধূর স্বামী আলতাফ হোসেন সৌদি আরব প্রবাসী। গত ছয়মাস পূর্বে ছুটিতে বাড়ীতে আসার পর সে ২ মাসের অন্তসত্ত¡া হয়। বাঘড়া মৌজাস্থিত ১নং খতিয়ানভুক্ত ৭০৪১,৭০৪২ দাগের ৬৪ শতাংশ সম্পত্তি খাস সম্পত্তি হওয়ায় প্রায় ৩০ বছর পূর্বে গৃহবধুর শ্বশুর মৃত মোসলেম শিকদার জীবিত থাকাকালীন সরকারের নিকট লীজ নেয়ার আবেদন করে ঘর দরজার উত্তোলন করে ভোগদখলে নিয়োজিত রয়েছেন। দীর্ঘদিন যাবৎ একই এলাকার ফিরোজের ছেলে অহিদুল(২৫), মৃত আহম্মদ বেপারীর ছেলে সোহরাব হোসেন(৬০), সোহবারের ছেলে দেলোয়ার হোসেন ওরফে দেলু(৩২), ফিরোজের স্ত্রী সাহিদা বেগম(৪০), মৃত আলম কাড়ালের ছেলে ফিরোজ(৫০), সোহরাবের স্ত্রী সাফিয়া বেগম(৫৫)গং গৃহবধূসহ তার পরিবারকে উক্ত সম্পত্তি হতে জোড় পূর্বক উচ্ছেদের পায়তারা করে আসছিল। ঘটনার দিন অহিদুলগং হাতে দা, লাঠি শোঠা ইত্যাদি নিয়ে বে-আইনীভাবে গৃহবধুর বাড়ীতে ঢুকে বাদীনির ঘরে পিছনের মাটি কাটিতে থাকে। এসময় গৃহবধূ নিষেধ করলে সোহরাবের হুকুমে অহিদুল গৃহবধুকে লক্ষ্য করে ইট ছুড়ে মারলে ঘটনাস্থলে গৃহবধুর প্রচুর রক্তক্ষরন হয়ে গর্ভপাত ঘটে। তার স্বামী এগিয়ে আসলে অন্যান্যরা স্বামীকে এলাপাথী মারপিট করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুত্বর জখম করে। পরে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে অহিদুলগং গৃৃহবধূকে খুন জখমের হুমকি দিয়ে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন গৃহবধূসহ ও তার স্বামীকে উদ্ধার করে দ্রæত হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে।

এব্যাপারে বাদীনির দায়েরকৃত মামলার তদন্তকারী অফিসার শ্রীনগর থানার পুলিশের উপ-পুলিশ পরিদর্শন(এস,আই) শান্তি চন্দ্র দাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। মামলার বিবাদীরা বর্তমানে জামিনে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x