ঢাকা, বৃহস্পতিবার ২১ অক্টোবর ২০২১, ০২:৫৯ অপরাহ্ন
পাইকগাছায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক মাসে ৭টি বাল্য বিয়ে বন্ধ
মোঃ মনিরুল ইসলাম, পাইকগাছা

পাইকগাছায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক মাসে ৭টি বাল্য বিয়ে বন্ধ

 খুলনার পাইকগাছায় একমাসে ৭টি বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। প্রশাসন কঠোর অবস্থানে থেকে জেল জরিমানা দিলেও থামানো যাচ্ছে না। পাইকগাছায় নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে দশ বছরের শিশু বিয়ে বন্ধ করলো উপজেলা প্রশাসন। এ নিয়ে গত এক মাসে ৭ বাল্যবিয়ে বন্ধ করে সর্বমোট ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী। প্রশাসন কঠোর অবস্থানে থাকলেও থামানো যাচ্ছেনা তাদের। শুক্রবার রাতে উপজেলার তোকিয়া গ্রামের মোঃ তরিকুল মোড়ল তার ১০ বছরের শিশুকে অবৈধ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী বিরাশি গ্রামের মোঃ আকবর গাজীর ছেলে মোঃ রুস্তম গাজীর সাথে বিবাহ সম্পন্ন করার আগেই প্রশাসন হাজির হয়ে বিবাহ বন্ধ করে দেন। গত ২৪ জুন  উপজেলার  রাড়ুলী গ্রামের মোঃ আবু সায়েদ মালী তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে অবৈধ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী কাটিপাড়া গ্রামের মোঃ আতিয়ার রহমানের ছেলে মোঃ মাসুম বিল্লাহর সাথে বিবাহ সম্পন্ন করেন।

১ জুলাই লক্ষ্মীখোলা গ্রামের মোঃ রুহুল আমিন গাজী তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে আইনজীবীর সহযোগিতায় অবৈধ নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে পার্শ্ববর্তী আরাজি ভবানিপুর গ্রামের মোঃ রফিকুল সরদারের ছেলে মোঃ রাসেল সরদারের সাথে বিবাহ সম্পন্ন করেন। ২ জুলাই  নোয়াকাটি  গ্রামের গৌরাঙ্গ বিশ্বাস তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে  ডুমুরিয়া উপজেলার সরাফপুর ইউনিয়নের তৈয়বপুর গ্রামের পঞ্চানন বিশ্বাসের ছেলে সমীর বিশ্বাসের সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহ সম্পন্ন করেন।

একই দিন  হরিঢালী গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে আনারুল ইসলাম পার্শ্ববর্তী কপিলমুনি ইউনিয়নের শ্যামনগর গ্রামের মোঃ আবুল হোসেন সানার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে  নিয়ে পালিয়ে নোটারী মাধ্যেমে বিয়ে  করেন। ২৩ জুলাই  নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে কাশিম নগরের আবুল হোসেন সরদার তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে (১৬) জন্ম নিবন্ধন সনদে বয়স জালিয়াতি করে ১৮ বছর ৬ মাস দেখিয়ে পার্শ্ববর্তী তালা উপজেলার ঘোনা গ্রামের কামরুল সরদারের ছেলে মেহেদি হাসান রনির (২১) সাথে বিয়ে দেন।

২৮ জুলাই  হিতামপুর  গ্রামের বাসুদেব বিশ্বাস তার অপ্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে পার্শ্ববর্তী হরিঢালী ইউনিয়নের মাহমুদকাটি গ্রামের নারদ বিশ্বাসের ছেলে গৌতম বিশ্বাসের সাথে কঠোর লকডাউনের সরকারি বিধি নিষেধ উপেক্ষা করে আনুষ্ঠানিকভাবে বিবাহ সম্পন্ন করেন। বুধবার সন্ধ্যায় পুরোহিতের উপস্থিতিতে হিন্দু রীতি অনুসারে মেয়ের পিতার বাড়িতে এ বিবাহ সম্পন্ন হয়। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী উপজেলা আনসার ও ভিডিপি প্রশিক্ষক মোঃ আলতাফ হোসেনের মাধ্যেমে তাতের পিতা মাতাকে আটক করে। পরে মেয়ের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়ায় বিবাহ সম্পন্ন করার কারণে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে “বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭” ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৭ ছেলে- মেয়ের পিতাকে ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

One response to “পাইকগাছায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক মাসে ৭টি বাল্য বিয়ে বন্ধ”

  1. diyala says:

    … [Trackback]

    […] There you will find 5743 more Information to that Topic: doinikdak.com/news/43670 […]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x