ঢাকা, বুধবার ২৪ জুলাই ২০২৪, ০৭:১৪ অপরাহ্ন
এপিজে আবদুল কালাম এর ৬ষ্ঠ প্রয়াণ দিবস স্মরণ
ভাস্কর সরকার (রাবি):
রাস্ট্রপতি ভবনের মেঝেতে বসে বই পড়ছেন মিসাইলম্যান৷ আর মেঝেতে ঋষি অরবিন্দ ঘোষের লেখা বই “দ্যি লাইফ ডিভ্যাইন”। ধর্ম, বর্ণের সংকীর্ণতার  উর্ধ্বে পৃথিবীর শক্তিশালী একজন মানুষ যাঁর জন্ম থেকে মৃত্যু, আত্মত্যাগ শুধুই দেশ ও জাতির জন্য৷ একদম সাদাসিধে জীবনে অভ্যস্ত এই বিখ্যাত বিজ্ঞানী৷ যার কথা বলছি তাঁর পুরো নাম ‘আবুল পাকির জয়নুল আবেদিন আবদুল কালাম’৷
১৯৩১ সালের ১৫ই অক্টোবর দক্ষিণ ভারতের রাজ্য তামিলনাড়ুর রাজ্যের রামেশ্বরমে অত্যন্ত দরিদ্র এক মৎস্যজীবী পরিবারে এই মহান মানুষটির জন্ম। কিন্তু যে অর্থনৈতিক ও সামাজিক বাধা অতিক্রম করে আবদুল কালাম ভারতে বিজ্ঞানচর্চার শীর্ষে ও সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে আরোহণ করেছিলেন যা রূপকথাকেও হার মানায়। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন অবিবাহিত, আর খুব সহজ সরল অনাড়ম্বর জীবনযাপনের জন্যও আজীবন সমগ্র বিশ্ববাসীর নিকট পরিচিত ছিলেন। তিনি ছিলেন একাধারে বিজ্ঞানী, লেখক ও সমাজচিন্তক, ছিলেন ভারতীয় প্রজাতন্ত্রের একাদশ রাষ্ট্রপতি। রাষ্ট্রপতি পদ থেকে অবসরের পর থেকেও মি. কালাম সারা দেশ জুড়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা-বিষয়ক ও প্রেরণামূলক বক্তৃতা দিয়ে বেড়াতেন, বহু জনপ্রিয় বইও লিখেছিলেন তিনি।
আবদুল কালাম তাঁর কর্মজীবন শুরু করেছিলেন একজন বিজ্ঞানী হিসেবে। পরে তিনি ঘটনাচক্রে গণপ্রজাতন্ত্রী ধর্মনিরপেক্ষ ভারতের রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। রকেট উন্নয়নের কাজে অবদানের জন্য তাকে ‘ভারতের ক্ষেপণাস্ত্র মানব’ বা ‘মিসাইল ম্যান অব ইন্ডিয়া’ বলা হয়। ভারতের সর্বোচ্চ অসামরিক সম্মান ভারতরত্নসহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ সম্মান ও পুরস্কার পেয়েছিলেন কালাম। তাঁর জীবদ্দশায় ৮৪ বছরের দীর্ঘ ও সফল কর্মজীবনে অর্জিত অভিজ্ঞতা ও দর্শন থেকে আমাদের জন্য রেখে গেছেন অসংখ্য মহামূল্যবান বাণী। তার মধ্যে কিছু সংকলন করা হলো-
১. একটি ভালো বই একশ ভালো বন্ধুর সমান, কিন্তু একজন ভালো বন্ধু একটি লাইব্রেরির সমান।
২. সফলতার গল্প পড়ো না, কারণ তা থেকে তুমি শুধু গল্পটাই পাবে। ব্যর্থতার গল্প পড়ো, তাহলে সফল হওয়ার কিছু উপায় পাবে।
৩. স্বপ্ন পূরণ না হওয়া পর্যন্ত স্বপ্ন দেখে যাও। স্বপ্ন সেটা নয় যা তুমি ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে দেখো, স্বপ্ন হলো সেটাই যা তোমাকে ঘুমোতে দেয় না।
৪. মানুষ তার ভবিষ্যত পরিবর্তন করতে পারে না, কিন্তু অভ্যাস পরিবর্তন করতে পারে। অভ্যাসই মানুষের ভবিষ্যত পরিবর্তন করে দেয়।
৫. তুমি যদি সূর্যের মতো আলো ছড়াতে চাও, তাহলে আগে সূর্যের মতো পুড়তে শেখো।
৬. উদার ব্যক্তিরা ধর্মকে ব্যবহার করে বন্ধুত্বের হাত বাড়ান। কিন্তু সংকীর্ণমনস্করা ধর্মকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে।
৭. জাতির সবচেয়ে ভালো মেধা ক্লাসরুমের শেষ বেঞ্চ থেকে পাওয়া যেতে পারে।
৮. জীবন ও সময় পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ শিক্ষক। জীবন শেখায় সময়কে ভালোভাবে ব্যবহার করতে আর সময় শেখায় জীবনের মূল্য দিতে।
৯. কঠিন কাজে আনন্দ বেশি পাওয়া যায়। তাই সফলতার আনন্দ পাওয়ার জন্য মানুষের কাজ কঠিন হওয়া উচিত।
১০. প্রথম সাফল্যের পর বসে থেকো না। কারণ দ্বিতীয়বার যখন তুমি ব্যর্থ হবে তখন অনেকেই বলবে প্রথমটিতে শুধু ভাগ্যের জোরে সফল হয়েছিলে।
১১. যারা মন থেকে কাজ করে না, তারা আসলে কিছুই পায় না। আর পেলেও সেটা হয় অর্ধেক হৃদয়ের সফলতা। তাতে সব সময়ই একরকম তিক্ততা থেকে যায়।
১২. তরুণ প্রজন্মের কাছে আমার বার্তা হলো- তাদের ভিন্নভাবে চিন্তা করবার সাহস থাকতে হবে। মনের ভেতর আবিষ্কারের তাড়না থাকতে হবে। নিজের সমস্যা নিজে মেটাবার মানসিকতা থাকতে হবে।
১৩. বৃষ্টি শুরু হলে সব পাখিই কোথাও না কোথাও আশ্রয় খোঁজে। কিন্তু ঈগল মেঘের ওপর দিয়ে উড়ে বৃষ্টিকে এড়িয়ে যায়।
১৪. আমি সুপুরুষ নই। কিন্তু যখন কেউ বিপদে পড়েন আমি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিই। সৌন্দর্য থাকে মানুষের মনে, চেহারায় নয়।
১৫. কাউকে হারিয়ে দেয়াটা খুব সহজ, কিন্তু কঠিন হলো কারো মন জয় করা।
১৬. তুমি যদি তোমার কাজকে স্যালুট করো, দেখো তোমাকে আর কাউকে স্যালুট করতে হবে না। কিন্তু তুমি যদি তোমার কাজকে অসম্মান করো, অমর্যাদা কর, ফাঁকি দাও, তাহলে তোমার সবাইকে স্যালুট করতে হবে।
১৭. প্রতিদিন সকালে এই পাঁচটা লাইন বলো:
ক) আমি সেরা
খ) আমি করতে পারি
গ) সৃষ্টিকর্তা সব সময় আমার সঙ্গে আছে
ঘ) আমি জয়ী
ঙ) আজ দিনটা আমার
১৮. তিনজনই পারেন একটি দেশ বা জাতিকে বদলাতে। তাঁরা হলেন, বাবা, মা ও শিক্ষক।
১৯. জীবনে সমস্যার প্রয়োজন আছে। সমস্যা আছে বলেই সাফল্যে এতো আনন্দ।
২০. যে হৃদয় দিয়ে কাজ করে না, শূন্যতা ছাড়া সে কিছুই অর্জন করতে পারে না।
২১. ফেল করে হতাশ হয়ো না। ইংরেজি শব্দ ফেল ‘Fail’ মানে ‘First Attempt in Learning’ অর্থাৎ ‘শেখার প্রথম ধাপ’। বিফলতাই তোমাকে সফল হবার রাস্তা দেখিয়ে দেবে।
২২. সমাপ্তি মানেই শেষ নয়। ‘END’ শব্দটির মানে হচ্ছে ‘Effort Never Dies’ অর্থাৎ ‘প্রচেষ্টার মৃত্যু নেই’।
২৩. আমরা শুধু সাফল্যের উপরেই গড়ি না, ব্যর্থতার উপরেও গড়ি।
২৪. একজন খারাপ ছাত্র একজন দক্ষ শিক্ষকের কাছ থেকে যা শিখতে পারে তার চেয়ে একজন ভালো ছাত্র একজন খারাপ শিক্ষকের কাছ থেকে অনেক বেশি শিখতে পারে।
২৫. উপরে তাকিয়ে আকাশটাকে দেখো। তুমি একা নও, এই মহাবিশ্ব তোমার বন্ধুর মতোই।
২৬. কোনো একটা প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পাচ্ছো না! চিন্তিত করো না- ‘NO’ শব্দের মানে হচ্ছে ‘Next Opportunity’ অর্থাৎ ‘পরবর্তী সুযোগ’।
২০১৫ খ্রিষ্টাব্দের ২৭শে জুলাই, রোজ সোমবার, মেঘালয়ের শিলং শহরে অবস্থিত ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট নামক প্রতিষ্ঠানে ‘বসবাসযোগ্য পৃথিবী’ বিষয়ে বক্তব্য রাখার সময় ভারতীয় প্রমাণ সময় সন্ধ্যা ৬:৩০ নাগাদ হৃদরোগে আক্রান্ত হন। তাকে বেথানী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়, যেখানে সন্ধ্যা ভারতীয় প্রমাণ সময় ৭:৪৫ নাগাদ এই মহান বিজ্ঞানী পরপারে পাড়ি জমান৷ আজ তাঁর ষষ্ঠ প্রয়াণ দিবসে বাংলাদেশের আপামর জনগণের পক্ষ থেকে হৃদয়ের অন্তরস্থল থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি৷
লেখক
পিএইচ.ডি গবেষক
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়৷

15 responses to “এপিজে আবদুল কালাম এর ৬ষ্ঠ প্রয়াণ দিবস স্মরণ”

  1. 뉴토끼 says:

    … [Trackback]

    […] Information to that Topic: doinikdak.com/news/40614 […]

  2. Hi! This is kind of off topic but I need some help from an established blog.
    Is it difficult to set up your own blog? I’m not very techincal but I can figure things out pretty fast.
    I’m thinking about creating my own but I’m not sure where to start.

    Do you have any ideas or suggestions? Many thanks

  3. I absolutely love your blog and find many of your post’s to be what precisely I’m looking for.
    Would you offer guest writers to write content in your case?
    I wouldn’t mind producing a post or elaborating on many of the subjects you write about here.
    Again, awesome blog!

  4. This information is priceless. When can I find out more?

  5. It’s fantastic that you are getting ideas from this article as
    well as from our dialogue made here.

  6. Woah! I’m really digging the template/theme of this site.
    It’s simple, yet effective. A lot of times it’s difficult to get that “perfect balance” between superb usability and visual
    appeal. I must say you’ve done a superb job with this.
    Also, the blog loads extremely quick for me on Opera. Exceptional Blog!

  7. This is a topic that’s near to my heart… Thank you!
    Exactly where are your contact details though?

  8. I think this is among the most significant information for
    me. And i’m glad reading your article. But should remark on few general things, The
    web site style is ideal, the articles is really nice : D. Good job, cheers

  9. What’s up, the whole thing is going perfectly here and ofcourse every one
    is sharing facts, that’s actually fine, keep up writing.

  10. My partner and I stumbled over here by a different page and thought I may as well check things out.
    I like what I see so i am just following you. Look forward to going
    over your web page repeatedly.

  11. Excellent, what a blog it is! This blog gives valuable facts to us,
    keep it up.

  12. Heya i am for the primary time here. I found this board and I find It really useful & it helped me out a lot.

    I hope to give something back and aid others like you helped
    me.

  13. It’s the best time to make a few plans for the long
    run and it’s time to be happy. I have read this post and if I could I desire
    to recommend you few interesting issues or tips. Perhaps you can write next articles regarding this article.
    I want to read even more things approximately it!

  14. Its like you read my mind! You appear to know a lot about this,
    like you wrote the book in it or something. I think that you
    can do with some pics to drive the message home a
    bit, but instead of that, this is wonderful blog.

    An excellent read. I’ll definitely be back.

  15. It’s amazing in support of me to have a web site, which is beneficial in favor of my experience.

    thanks admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x