ঢাকা, শুক্রবার ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৭ অপরাহ্ন
বরগুনায় ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে মাইক্রো-প্রাইভেটকারের টিকেট বিক্রি
সাকিব মাহমুদ,বরগুনা

সারাদেশের ন্যায় বরগুনাতেও চলছে সরকার ঘোষিত লকডাউন। এতে ঢাকা-বরগুনা মহাসড়কসহ আঞ্চলিক সড়কেও বন্ধ রয়েছে আন্তঃজেলা এবং দূর পাল্লার গণপরিবহন চলাচল। আর গণপরিবহন বন্ধ থাকার সুযোগে পিকআপ-মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারে যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে।

ঢাকা থেকে অনেক যাত্রী প্রাইভেট কার ও মাইক্রোবাসে বরগুনায় আসছেন। আবার বরগুনা থেকে গাদাগাদি করে ৩ জনের সিটে ৫ জন যাত্রী নিয়ে এসব পরিবহন ঢাকায় ছেড়ে যাচ্ছে। এমনকি এম্বুলেন্সে করেও যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে।যাত্রীরা জানান, ফেসবুকে ঘোষনা দিয়ে মাইক্রোবাস-প্রাইভেটকারের টিকেট বিক্রি হচ্ছে। জনপ্রতি ২ থেকে ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত ভাড়া নেয়া হয়। এসব সিন্ডিকেটে স্থানীয় পরিবহন ব্যবসায়ি এবং রাজনৈতিক নেতাদের জড়িত থাকার অভিযোগ করেছেন কেউ কেউ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বরগুনা টাউনহল ব্রীজের মনসাতলি স্টান্ড, ক্রোক, স্টেডিয়ামসহ আরো বেশ কয়েকটি স্থান থেকে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়েই মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকারে গাদাগাদি করে ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দিচ্ছেন যাত্রীর

এক যাত্রীকে লকডাউনের সময় বের হয়েছেন কেন জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ‘কাজের জন্য বের হয়েছি, কাজ না করলে খাবো কি? এজন্য বেশি ভাড়া দিয়ে ঢাকায় রওনা হয়েছি।’ এসময় মহাসড়কে পুলিশের উপস্থিতি থাকলেও তাদের কোন তৎপরতা দেখা যায়ন

এ বিষয়ে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তরিকুল ইসলাম বলেন, “আমরা মহাসড়কে টহল দিচ্ছি। কোন পরিবহণ যাত্রী নিয়ে চলাচল করলেই আটক করা হবে।”তবে তার এই বক্তব্যের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে স্থানীয় সচেতন মহল। তাদের দাবী, প্রশাসনকে উৎকোচ  দিয়েই রাতের আধারে চালানো হচ্ছে মাইক্রো এবং প্রাইভেটকার। তাই সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে আরো জোরালো পদক্ষেপ গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x