ঢাকা, সোমবার ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৭:০৫ পূর্বাহ্ন
ভোলায় পূর্ব শত্রুতার জেরে ব্যবসায়ীর উপর হামলা, ছিনতাই
আর জে শান্ত, ভোলা
ভোলা জেলার তজুমদ্দিন উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলায় মোঃ নয়ন (৩৫) নামে এক হোটেল ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে তার সাথে থাকা নগদ ৫৪ হাজার টাকা ও ১৭ হাজার ৫০০ টাকা দামের ভিভো মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। শুক্রবার (১৬ জুলাই) বিকেলে ৩টার দিকে  কুঞ্জেরহাট-তজমুদ্দিন সড়কের মাষ্টার বাড়ী সংলগ্ন এলাকায় এই হামলার ঘটনাটি ঘটে।
এ ঘটনায় আহতের স্ত্রী নুরুন নাহার বেগম নিজে বাদি হয়ে হামলাকারী মোঃ শাহীন (২৫),তার পিতা মোঃ কুট্টি মিয়া (৫৫) ও তার ভাই মোঃ সিরাজ এই  ৩ জনের নাম উল্লেখ করে বোরহানউদ্দিন জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ৩২৩/৩২৫/৩০৭/৩৯/৪২৭ ধারায় মামলা দায়ের করেন।
মামলার সূত্রে জানা যায়, ১ বছর আগে মিথ্যা মামলার চার্জ সীট থেকে আহত মোঃ নয়নের নাম বাদ দেওয়াতে তজুমদ্দিন উপজেলার শম্ভুপুর গ্রামের মোঃ শাহীন (২৫),তার পিতা মোঃ কুট্টি মিয়া (৫৫) ও তার ভাই মোঃ সিরাজ পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে শুক্রবার (১৬ জুলাই) বিকেলে কুঞ্জেরহাট-তজমুদ্দিন  সড়কের মাষ্টার বাড়ী সংলগ্ন এলাকায় ভোলা থেকে যাওয়ার পথে নয়নের   মোটরসাইকেল থামিয়ে  নয়ন কোন কিছু বোঝার আগেই শাহিন গংরা  তাকে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে এলোপাতালি মারা শুরু করে। এক পর্যায় মোঃ শাহীন তাকে হত্যার উদ্দেশ্য লোহার রড দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে।নয়ন হাত দিয়ে উক্ত আঘাত ঠেকাতে  গেলে তার ডান হাতে আঘাত  লেগে ডান  হাতের কব্জি ভেঙ্গে যায়। আবার মাথায় আঘাত করলে বাম হাত দিয়ে ঠেকাতে চেস্টা করলে বাম হাতে রডের আঘাতে কবজি ভেঙে যায় এরপর নয়ন মাটিতে  পরে গেলে আমার শরীলের বিভিন্ন স্থানে এলোপাথাড়ি পিটাতে শুরু করে হামলাকারীরা এবং তার পকেটে থাকা গরু ক্রয়ের উদ্দেশ্যে সাথে করে  নেওয়া ৫৪ হাজার টাকা ও ১৭৫০০ হাজার টাকা দামের ভিভো মোবাইল ছিনিয়ে নেয়  হামলাকারীরা । নয়নের  সাথে থাকা মোটরসাইকেলেও ভাংচুর চালায় হামলাকারীরা ।নয়নের সঙ্গে থাকা শ্বশুর ও তার ডাক চিৎকার শুনে আশে-পাশেরর লোকজন দৌড়াইয়া আসলে মোঃ শাহীন, মোঃ কুট্টি মিয়া (৫৫) ও মোঃ সিরাজ পালিয়ে যায়। তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল থেকে অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে মাহিন্দ্র যোগে নয়নকে ভোলা সদরে  হাবিব মেডিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য আনায় হয়।
এ ঘটনায় আহত মোঃ নয়নের স্ত্রী নুরুন নাহার বেগম বলেন আমি আমার বাবার বাড়ি ছিলাম। লোক মুখে খবর পেয়ে আমি ঘাটনাস্থলে যেয়ে আমার স্বামীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে  চিকিৎসার জন্য মেডিকেলে ভর্তি করি। আমি এই সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই।
বর্তমানে হামলাকরীদের ভয়ে মোঃ নয়ন ও তার পরিবারের লোকজন আতংঙ্কের মধ্যে রয়েছে আবার যেকোন সময় সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হওয়ার কথা জানিয়েছেন মোঃ নয়ন ও তার পরিবার।
এ ব্যাপারে হামলাকারী মোঃ শাহিনের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করতে চেষ্টা করলে পাওয়া যায়নি।
এই ঘটনার ব্যাপারে তজুমদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জিয়াউল হক জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের কাছে এখনো লিখিত অভিযোগ আসেনি, লিখিত অভিযোগ আশার পর আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

x