ঢাকা, বুধবার ২০ অক্টোবর ২০২১, ১২:১৬ অপরাহ্ন
মেঘনায় ৬ ট্রলারে ডাকাতি, মুক্তিপণ দিয়ে ফিরেছেন ৫ জেলে
দৈনিক ডাক অনলাইন ডেস্ক

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার মেঘনা নদীতে মাছ শিকারের সময় জেলেদের ৬টি ট্রলারে হামলা চালিয়ে মাছ, জালসহ মাছ ধরার বিভিন্ন সরঞ্জাম লুট করে নিয়ে গেছে ডাকাতরা।

এ সময় ডাকাত সদস্যরা ৫ জন জেলেকে অপহরণ করে দিয়ে যায়। পরে তাদের কাছ থেকে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ নিয়ে ছেড়ে দেয় বলে অভিযোগ করেন তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নে ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও সুইচঘাট এলাকার মৎস্য আড়ৎদার মো. সিরাজুল ইসলাম।

তিনি জানান, প্রতিদিনের মত রোববার রাত ১১টার দিকে জেলেরা তজুমদ্দিন ও মনপুরা উপজেলার মাঝা-মাঝি মেঘনা নদীতে মাছ শিকার করছিলেন। এ সময় একটি ট্রলার নিয়ে ১২-১৫ জন ডাকাত অস্ত্র নিয়ে পৃথক পৃথকভাবে মনপুরা উপজেলার ৩টি ও তজুমদ্দিন ৩টি ট্রলারের হামলা চালিয়ে জেলেদের মারধর করে মাছ, জাল, সোলার প্যানেল, ব্যাটারি, মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম লুট করে নিয়ে যায়।

এছাড়াও ৫টি ট্রলার থেকে মাকসুদ মাঝি (৩৫), শফি উদ্দিন মাঝি (৪২), নকিব মাঝি (৪৫), রুবেল মাঝি (৩৮) ও হারুন মাঝিকে (৪০) চোখ বেঁধে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে ডাকাত সদস্যরা জেলেদের পরিবারের সদস্যদের কাছে ফোন করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ২০ হাজার করে মোট ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ নিয়ে সোমবার সকালে বোরহানউদ্দিন উপজেলার মির্জাকালু এলাকায় নিয়ে তাদের ছেড়ে দেয় ডাকাতরা।

তিনি আরও জানান, সকালে দিকে আমার ট্রলারের মাঝি মো. মাকসুদ মাঝি আমার কাছে এসে ডাকাতি ও অপহরণের কথা বললে আমি চারদিকে খবর নিয়ে বিষয়টি নিশ্চিত হই। পরে আমরা তজুমদ্দিন থানায় জানিয়েছি।

তজুমদ্দিন থানার ওসি এসএম জিয়াউর হক জানান, বিষয়টি আমাদের মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। এখনও লিখিত অভিযোগ করেনি তারা। তবে আমরা বিষয়টি তদন্ত করছি।

One response to “মেঘনায় ৬ ট্রলারে ডাকাতি, মুক্তিপণ দিয়ে ফিরেছেন ৫ জেলে”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x